ঐতিহাসিক নির্বাচন শুরু লেবাননে

ঐতিহাসিক নির্বাচন শুরু লেবাননের
সেবা ডেস্ক: - লেবাননে প্রায় এক দশক পর প্রথমবারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। রোববার অস্ট্রেলিয়ার সিডনীতে এ ঐতিহাসিক নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শুরু হয়েছে। সেখানে বসবাসরত দেশটির এক হাজারের বেশি নাগরিক তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন।

ক্যানবেরায় অবস্থিত লেবাননের দূতাবাস থেকে বলা হয়, অস্ট্রেলিয়ায় লেবাননের প্রায় ১২ হাজার নিবন্ধিত ভোটার রয়েছে।

তবে এ ঐতিহাসিক নির্বাচনে লেবাননে ভোট গ্রহণ করা হবে আগামী ৬ মে। এ নির্বাচনের মধ্যদিয়ে দেশটিতে চলমান অর্থনৈতিক ও রাজনৈতিক সংকটের সমাধান হবে বলে আশা করা হচ্ছে। খবর এএফপি’র।

সিডনীতে লেবানিজ মুসলিম কমিউনিটির ৪৪ বছর বয়সী সদস্য নাজিহ কাইর বলেন, ‘আজ একটি বিশেষ দিন। এটি একটি গণতান্ত্রিক দিন। আপনি সর্বত্র আনন্দমুখর পরিবেশ দেখতে পাচ্ছেন।’
লাকেম্বা নামের একটি মসজিদের পাশের ভোটকেন্দ্র থেকে তিনি এএফপি’কে এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, ‘২০০৯ সাল থেকে আমাদের দেশে কোন নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়নি। অস্ট্রেলিয়ায় এ ধরনের আয়োজন এই প্রথম। এর মাধ্যমে আমরা বিদেশে বসেই লেবাননের নির্বাচনে অংশ নিতে পারছি। এ জন্য আমরা খুব খুশি। এ নির্বাচনের মাধ্যমে সবার ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটবে বলে আমরা আশা করছি।’

লেবাননে ২০০৯ সাল থেকে নির্বাচন হয়নি। নতুন আইনে বিদেশে অবস্থানরত লেবাননের নাগরিকদের ভোটাধিকার প্রয়োগের সুযোগ দেয়া হয়েছে। ১৯৪৩ সালে দেশটি স্বাধীন হওয়ার পর এই প্রথমবারের মতো বিদেশে অবস্থান করা দেশের নাগরিকরা ভোট দিতে পারছে। লেবাননের পার্লামেন্টের অর্ধেক আসন মুসলিম ও অর্ধেক আসন খ্রীষ্টানদের জন্য নির্ধারিত।

, , ,
themeforestthemeforest