SebaBanner

হোম
সাপাহারে জমজম ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির সংবাদ সম্মেলন

The press conference of the Zamzam Merchants Co-operative Society

গোলাপ খন্দকার (সাপাহার) নওগাঁ প্রতিনিধি: নওগাঁর সাপাহারে জমজম ব্যবসায়ী সমবায় সমিতির পরিচালক আবু নৈয়ম মাসুমের বিরুদ্ধে প্রতারনার অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে। মঙ্গলবর বিকেল সাড়ে ৫ টায় সাপাহার প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পড়েন সমিতির সদস্য ও মাঠকর্মী লিমন বাবু।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, সাপাহার বাজারে জমজম সমিতি নামে একটি ক্ষুদ্র সমিতির সদস্য ও মাঠকর্মীর দায়িত্বে ছিলেন। গত ৪/২/২০১৫ ইং তারিখে সমিতির পরিচালক আবু নৈয়ম মাসুম সমিতির অফিস বন্ধ করে দিয়ে সকল সদস্যদের টাকা ও কাগজপত্র নিয়ে জেলার মহাদেবপুরে পালিয়ে যান।


পরবর্তীতে সমিতির পরিচালক সমিতির বিভিন্ন সদস্যদের নামে লক্ষ লক্ষ টাকা দাবি করে চেকের মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। গত ২৩/১২/২০১৫ ইং তারিখে আবু নৈয়ম মাসুম ডেভেলপমেন্ড ব্যাংক লি: নওগাঁ শাখায় লিমন বাবুর নামে সিডি-২২ নং ও সমিতির সদস্য রিয়াজ উদীনের নামে সিডি-২৩ নং অ্যাকাউন্ট চালু করে ব্যাংক থেকে চেক গ্রহণ করে। ওই দুইটি অ্যাকাউন্ট থেকে কখনো কোন লেনদেন হয়নি।

এ বিষয়ে মহাদেবপুর উপজেলার চকদৌলত গ্রামের আব্দুল মতিন নামে এক ব্যাক্তি তাকে সহযোগীতা করেন।
আরও পড়ুন>>বাজারে বাঁশখালীর আগাম লিচু: বাম্পার ফলনে চাষীদের মুখে হাসি
আবু নৈয়ম মাসুম নওগাঁ আদালতে সমিতির সদস্য ও মাঠকর্মী লিমন বাবুর নামে ৩০ লক্ষ টাকার চেকের মামলা করেন, যার নং- ৪৭৮/১৬। পত্নিতলা উপজেলার দিবর মধ্যপাড়ার সাইদ উদ্দীনের ছেলে সদস্য রিয়াজ উদ্দীনের বিরুদ্ধে ১০ লক্ষ টাকার চেকের মামলা করেন, মামলা নং- ৩৭৬/১৬।


সমিতির সদস্য ও মাঠকর্মীরা সাপাহার সদর ইউপি চেয়ারম্যান আকবর আলী ও ধামইরহাট উপজেলার আগ্রাদ্বিগুন ইউপি চেয়ারম্যান সালেহ উদ্দীনকে বিষয়টি জানানো হয়। তারা একটি সমাধানের ব্যবস্থা গ্রহণ করলে প্রতারক আবু নৈয়ম মাসুম দুই চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধেও ১৬৪/১৭ সিআর মামলা দায়ের করেন। তবে সমিতির সদস্যরা ১০ লক্ষ টাকা দিলে মামলা তুলে নিবে বলে ও জানায় আবু নৈয়ম মাসুম। সংবাদ সম্মেলন থেকে বিষয়টির প্রতিকার ও সমিতির পরিচালক আবু নৈয়ম মাসুমের শাস্তি দাবী এবং মিথ্যে মামলা থেকে অব্যাহিত চান সমিতির সদস্য ও মাঠকর্মীরা।

এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, সমিতির সদস্য রিয়াজ উদ্দীন, গ্রাহক নাসির উদ্দীন মাষ্টার সহ অন্য সদস্যরা।
আরও পড়ুন>>চাঁদপুর এ মহান মে দিবস উদযাপন
এ বিষয়ে সমিতির পরিচালক আবু নৈয়ম মাসুম বলেন, লিমন বাবু ছিল আমার সমিতির ম্যানেজার। সে সমিতির অন্যান্য সদস্যদের কাছ থেকে টাকা তুলে আত্মসাত করেছে। আর টাকার জন্যই আদালতে মামলা করেছি।




, , ,

Home-About Us-Contact Us-Sitemap-Privacy Policy-Google Search