ভারত সফরে বিএনপি’র প্রতিনিধি দলকে পাত্তাই দিলো না বিজেপি

ভারত সফরে বিএনপি’র প্রতিনিধি দলকে পাত্তাই দিলো না বিজেপি

সেবা ডেস্ক: ভারত সরকারের নীতি-নির্ধারকদের সঙ্গে আলোচনার করতে সম্প্রতি দেশটিতে সফর করেন বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির তিন সদস্যের একটি প্রতিনিধি দল। এরই মধ্যে তারা দেশটির নেতৃস্থানীয় ব্যক্তিদের সঙ্গে ফোনে বিভিন্ন বিষয়ে আলোচনা শেষ করেন। তবে সরাসরি উচ্চপর্যায়ের কোনো নেতার সঙ্গে কথা বলার সুযোগ পাননি তারা।

চীন ও রাশিয়া সফরের শেষে বর্তমানে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি গুজরাটে বিশ্রাম নিচ্ছেন। আর এ কারণে ভারতীয় উচ্চপর্যায়ের নেতাকর্মীদের ব্যস্ততার কারণে বিএনপি নেতারা তাদের সঙ্গে সাক্ষাতের সুযোগ পাচ্ছেন না বলে জানায় ভারতীয় জনতা পার্টির এক সিনিয়র নেতা।

তবে উক্ত বক্তব্যের পরিপ্রেক্ষিতে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির এক সিনিয়র নেতা বলেন, ভারতের ক্ষমতাসীন বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ’র পক্ষ থেকে বিএনপি নেতাদের সঙ্গে অনির্বাণ গাঙ্গুলি বৈঠক করেছেন। যদিও অমিত শাহয়ের বৈঠক করার কথা ছিলো, কিন্তু তিনি ব্যস্ততার কারণে দেখা করতে পারে নি। এ সময় আমাদের অনির্বাণ গাঙ্গুলির সঙ্গে কথা হয়। তার কাছে আমরা বিএনপি ক্ষমতায় গেলে ভারতের জন্য যে সব সুবিধা হবে তার চিত্র তুলে ধরি। তবে বিজেপির পক্ষ থেকে আমাদের জামায়াতে ইসলামীর সঙ্গ ত্যাগের পরামর্শ দিয়েছে।

এ বিষয় নিয়ে রাজশাহী বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির সাধারণ সম্পাদকের সঙ্গে কথা হলে তিনি বলেন, বিএনপির প্রতিনিধি দল ক্ষমতায় আসার জন্য পরামর্শ করতে ভারতে গিয়েছে। ভারতের পক্ষ থেকে যে শর্ত দেয়া হয়েছে তা কোনো ভাবেই মানা যায় না। তারা জামায়াতের সঙ্গে সঙ্গে পাকিস্তানের সঙ্গও ত্যাগ করতে বলেছে। যেখানে আমাদের মূল আদর্শ পাকিস্তানের নীতির ওপর ভিত্তি করেই তৈরি।

বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির ভারত সফরকে খানিকটা ব্যর্থ বলে আখ্যায়িত করলেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের রাজনীতি বিষয়ক এক সিনিয়র শিক্ষক। তিনি বলেন, ভারত সফরের উপর বিএনপির রাজনীতি অনেকাংশে নির্ভর করবে বলে মনে হচ্ছিলো। তৃণমূল বিএনপির অনেকেই এ সফরের ওপর ভিত্তি করে আন্দোলনে যাবার কথা ছিলো। কিন্তু ভারত থেকে কোনো সুসংবাদ নিয়ে আসতে পারে নি বিএনপি। এমন অবস্থায় বিএনপির নতুন আন্দোলন তো দূরের কথা, আগামী নির্বাচনের অংশ গ্রহণ করলেও কোনো আসন পাবে কি না, তা নিয়ে সংশয় হচ্ছে।



, , ,
themeforestthemeforest

ছবি কথা বলে