SebaBanner

আজ*

হোম
তারেক জিয়াকে বাদ দিয়েই বরিশাল সিটি নির্বাচন করবে মজিবর

তারেক জিয়াকে বাদ দিয়েই বরিশাল সিটি নির্বাচন করবে মজিবর

সেবা ডেস্ক: খুলনা ও গাজীপুর সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির শোচনীয় পরাজয়ে ভীত হয়ে এবার বরিশাল সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে ২০ দলীয় জোটের মেয়র প্রার্থী মজিবর রহমান সরোয়ারকে প্রার্থীতা প্রত্যাহার করার জন্য আদেশ করেছেন লন্ডনে পলাতক বিএনপি নেতা তারেক জিয়া। 

বিশেষ সূত্রে জানা গেছে, পর পর সিটি নির্বাচনে বিএনপির হতাশাজনক পরাজয় ঘটলে আগামী সংসদ নির্বাচনে সাধারণ মানুষ বিএনপিকে ভুলেও ভোট দিবে না। বিএনপির গায়ে হারা পার্টির তকমা লাগলে রাজনীতি করার কষ্টকর হয়ে যাবে, এই বিবেচনায় গত ৮ জুলাই গভীর রাতে মজিবর রহমান সরোয়ারকে ফোন করে নির্বাচন না করার হুকুম দিয়েছেন তারেক।

সর্বশেষ পাওয়া খবরে জানা গেছে, তারেক রহমানের হুকুম অমান্য করেই নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত লড়াই করার ঘোষণা দিয়েছেন মজিবর রহমান সরোয়ার।

লন্ডন সূত্রের খবরে জানা যায়, খুলনা ও গাজীপুর নির্বাচনে পরাজিত হয়ে চরম ভাবে ভেঙে পড়েছেন তারেক রহমান। এত টাকা খরচ করেও প্রার্থীরা লজ্জাজনকভাবে হেরেই চলেছেন। তার মানে বাংলাদেশের মানুষ বিএনপিকে প্রত্যাখ্যান করেছে। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি আজকে ছন্নছাড়া দলে পরিণত হয়েছে।

সামান্য সিটি নির্বাচনে যদি বিএনপির এমন মরণদশা হয় তাহলে আগামীতে অনুষ্ঠিতব্য জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বিএনপি তলানীতে পড়ে যাবে। নির্বাচনে জয়ী হয়ে দেশ শাসন করা দূরে থাক, সংসদে বিরোধী দলও হতে পারবে না বিএনপি।

এমনিতেই বিএনপি কোনঠাঁসা অবস্থায় আছে। বরিশাল সিটি নির্বাচনে যদি পরাজিত হয় তাহলে দেশবাসীকে মুখ দেখাতে পারবে না বিএনপি। এর মধ্যে আবার জামায়াত প্রকাশ্যে বিরোধীতা করছে। জোট ভেঙে নতুন রাজনৈতিক জোট তৈরি করতে তৎপর তারা।

তাই সব মিলিয়ে বরিশাল সিটি নির্বাচনে নিজেদের সম্ভাব্য পরাজয় ঠেকিয়ে অন্তত বিএনপির মান-সম্মান বাঁচাতে চান তারেক রহমান। এই চিন্তা থেকেই বরিশাল সিটি নির্বাচনে মজিবর রহমান সরোয়ারকে সরে দাঁড়াতে নির্দেশ দিয়েছেন তারেক রহমান।

সর্বশেষ পাওয়া খবরে জানা গেছে, তারেক রহমানকে অগ্রাহ্য করে সিটি নির্বাচনে জয়-পরাজয় যাই হোক, শেষ পর্যন্ত লড়াই করে যাওয়ার ঘোষণা করেছেন মজিবর রহমান সারোয়ার।

এই বিষয়ে মজিবর রহমান সরোয়ারের ঘনিষ্ঠ এক বিএনপি নেতা বলেন, তারেক রহমান ফোন করলেই তো আমরা নির্বাচন থেকে সরে আসব না। এই অভাবের দিনে ১০ কোটি টাকা লন্ডনে পাঠিয়ে, অনেক কাঠ-খোঁড় পুড়িয়ে মনোনয়ন পেয়েছেন সারোয়ার ভাই।

নির্বাচন করব আমরা। উনি লন্ডনে বসে কিভাবে বলতে পারেন যে বিএনপি প্রার্থী নির্বাচনে হেরে যাবে। না মরে আমরা ভূত হতে চাই না। সারোয়ার ভাই দমে যাওয়ার পাত্র নন। বিএনপিকে আমরাই টিকিয়ে রেখেছি। লন্ডন থেকে কেউ ফোন করে বললেই তো আমরা সরে দাঁড়াব না।

মান সম্মানের বিষয় আছে। আমরা তো পলাতক আসামী না। আমরা বাংলাদেশের স্থায়ী বাসিন্দা। যাই হোক আমাদের সাথে, আমরা এখানেই থাকব। আমরা অবশ্যই নির্বাচন করব। কেউ আটকাতে পারবে না।



, , ,