পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে আরও সম্পর্ক উন্নয়ন নতুন সরকারের লক্ষ্য

পশ্চিমা দেশগুলোর সঙ্গে আরও সম্পর্ক উন্নয়ন নতুন সরকারের লক্ষ্য
সেবা ডেস্ক: প্রায় এক যুগ আগের নির্বাচনী ইশতেহারের ‘ভিশন ২০২১’ লক্ষ্য দিয়েছিল বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বাধীন মহাজোট। সরকার গঠনের পর সে লক্ষ্য পূরণে গত দশ বছরের রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় দেশকে অনুন্নত থেকে উন্নয়নশীল রাষ্ট্রে প্রবেশ করিয়েছে। দেশের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ প্রাতিষ্ঠানিক বিভাগগুলোকে ‘ডিজিটাল পদ্ধতিতে রূপান্তরিত করেছে গবেষণালব্ধ পদ্ধতির ব্যবহারে। দেশের অভ্যন্তরীণ খাদ্য, বস্ত্র, বিদ্যুৎসহ নানান দিক থেকে করেছে সমৃদ্ধ।

সদ্য সমাপ্ত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মধ্য দিয়ে টানা তৃতীয় মেয়াদের মতো রাষ্ট্রীয় ক্ষমতায় এসেছে সেই শেখ হাসিনারই আওয়ামী লীগ। যেখানে এ সরকারের পরবর্তী লক্ষ্য ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত দেশে রূপান্তরিত হওয়া। আর দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষ্যে বহির্বিশ্বের সাথে সব ধরনের ভুল বোঝাবুঝির অবসান ঘটিয়ে সুসম্পর্ক তৈরিতে নতুন সরকার বিশেষভাবে জোর দিবে বলে জানা গেছে।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, অনুন্নত একটি দেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করতে গেলে আগে থেকেই উন্নত রাষ্ট্রের তালিকায় থাকা দেশগুলোকে অনেক বিষয়েই ছাড় দিয়ে চলতে হয়। এতে নিজের দেশের ক্ষতি হলেও অনক সময় মুখ বুঝে মেনে নিতে হয়। যেহেতু বিষয়টি রাজনীতির সাথে জড়িত, তাই সামান্য বিষয়েও উন্নত রাষ্ট্রগুলোর সাথে ভুল বোঝাবুঝি সৃষ্টি হতেই পারে। তবে কোনো একটি সরকার যখন তার অনুন্নত দেশকে উন্নত রাষ্ট্রের তালিকায় উঠাতে দৃঢ় সংকল্পবদ্ধ হয়, তখন সে সরকারকে বহু বিষয়ে ছাড় দিয়ে বিশ্বের বাকি উন্নত দেশগুলোর সাথে সুসম্পর্ক বজায় রাখতে হয়।

সরকারের কূটনৈতিক সূত্রে জানা গেছে, এখনো পর্যন্ত যুক্তরাষ্ট্র, যুক্তরাজ্য ও জার্মানীসহ পশ্চিমা ও উন্নত দেশগুলোর সঙ্গে সরকারের নানা বিষয়ে যে ভুল বোঝাবুঝি ও দূরত্ব রয়েছে বলে চাউর রয়েছে, দেশের স্বার্থে তা দ্রুত ঘুচিয়ে এনে সম্পর্কের উন্নয়ন করাই এখন নতুন সরকারের অন্যতম লক্ষ্য।

পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, সদ্য অনুষ্ঠিত ভোটের পর ভারত, চীন, মরক্কো, ভিয়েতনাম, কোরিয়া, কানাডাসহ অনেক দেশই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে অভিনন্দন বার্তা পাঠিয়েছে। একাধিক বিশ্ব নেতাই শেখ হাসিনাকে টেলিফোন করে অভিনন্দন জানিয়েছেন। কিন্তু বিশ্বের অন্যতম যে সকল শক্তি ও বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের অন্যতম সহযোগী যে দেশগুলো এখনো নতুন সরকারকে অভিনন্দন জানাতে বিলম্ব করেছে, সরকার ধরে নিচ্ছে তাদের সাথে সম্পর্কের আরও উন্নয়ন করতে হবে।

দেশের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সূত্রে জানা গেছে, ‘নতুন সরকার গঠিত হয়েছে। লক্ষ্য দেশকে ২০৪১ সালের মধ্যে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করা। আর বাংলাদেশের জনগণের উন্নয়নের জন্য এখন সঠিক পথের সন্ধান করা সরকারসহ সব রাজনৈতিক দলের জন্য জরুরি। সরকার সবার সঙ্গে কথা বলবে। এরপর উন্নত দেশগুলোর সাথে ঠিক যে যে বিষয়গুলোতে ভুল বোঝাবুঝি অনুমান করা হচ্ছে, সে বিষয়ে প্রয়োজনীয় সাঠিক তথ্যগুলো দিয়ে ভুল বোঝাবুঝি অবসান করে উভয় দেশের মধ্যে সম্পর্কের বাঁধন আরও দৃঢ় করবে। আর এটাই এখন সরকারের মূল লক্ষ্য।
⇘সংবাদদাতা: সেবা ডেস্ক

, , ,

0 মন্তব্য(গুলি)

Comments Please