গাইবান্ধা-৩ আসন: নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনে জাসদ প্রার্থী’র ভোট বর্জন

গাইবান্ধা-৩ আসন নির্বাচনে পরাজয় নিশ্চিত জেনে জাসদ প্রার্থী’র ভোট বর্জন
গাইবান্ধা-৩ আসনের জাসদ প্রার্থী এস এম খাদেমুল ইসলাম খুদি

গাইবান্ধা প্রতিনিধি: একাদশ জাতীয় সংসদের স্থগিতকৃত আসন গাইবান্ধা-৩ (পলাশবাড়ী-সাদুল্যাপুর) আসনে নির্বাচনে নিশ্চিত পরাজয় জেনে ভোট শেষের  একঘন্টা আগে ভোট কেন্দ্র দখল, ব্যালট পেপারে সিলমারাসহ নানা অনিয়মের মিথ্যা অভিযোগ তুলে ভোট বর্জনের ঘোষণা দিয়েছেন জাসদ প্রার্থী এস এম খাদেমুল ইসলাম খুদি। আজ ২৭ জানুয়ারী রবিবার বেলা ৩ টার পরে  গাইবান্ধা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি এ ঘোষণা দেন।

সাদুল্যাপুর-পলাশবাড়ী উপজেলা নিয়ে গঠিত এ আসনে প্রতিদ্বন্দি  প্রার্থী পাঁচজন। তাদের মধ্যে মহাজোট ও আওয়ামীলীগ প্রার্থী ডা. ইউনুস আলী সরকার, জাপার ব্যারিস্টার দিলারা খন্দকার শিল্পী, জাসদের এস এম খাদেমুল ইসলাম খুদি। এছাড়া অন্য দুই প্রার্থী হলেন পিপলস পার্টি মিজানুর রহমান ও স্বতন্ত্র আবু জাফর নিউ।

সকাল ৮টা থেকে দুই উপজেলার ১৩২টি ভোট কেন্দ্রে ভোট নেওয়া শুরু হয়। দুপুর ১টা পর্যন্ত কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি কম দেখা যায়। পরে ভোটার উপস্থিতি বারতে থাকে ।

এদিকে, প্রভাব বিস্তার ও আইনশৃঙ্খলা বাহীনির সদস্যের সঙ্গে খারাপ আচরণের অভিযোগে ভাতগ্রাম স্কুল অ্যান্ড কলেজ কেন্দ্রের ভাতগ্রাম সুমন মন্ডল নামে একজনকে আটক করেছে বিজিবি। এসময় উত্তেজনা সৃষ্টি হলে ফাঁকাগুলি ছুড়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে বিজিবি। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সাদুল্যাপুর থানার ওসি আরশেদুল হক।

তবে আইনশৃঙ্খলা বাহীনির সঙ্গে কোনও ঘটনাই ঘটেনি বলে দাবি করেন সুমন মন্ডলের অনুসারী ও দলের নেতাকর্মীরা।

ভাতগ্রাম ইউনিয়ন ছাত্রলীগের নেতা আবু তাহের বলেন, ‘সুষ্ঠু পরিবেশে ভোট গ্রহণ চলছিল। সুমন মন্ডল একটি দোকানের দিকে যাওয়ার সময় হঠাৎ করে বিজিবি তাকে আটক করে। এ সময় স্থানীয় লোকজন ও নেতাকর্মীরা ক্ষিপ্ত হয়ে উঠলে বিজিবি গুলি ছুঁড়ে মানুষকে ছত্রভঙ্গ করে দেয়।’এছাড়া আসনটির অন্য ১৩১ টি কেন্দ্রে কোন প্রকার কোন বিশৃংখলার ঘটনা ঘটেনি । নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে অনুষ্ঠিত হয়েছে বলে জেলা জাসদ নেতা ও উপজেলা জাসদের সভাপতি নুরুজ্জামান প্রধান দাবী করেছেন ।


⇘সংবাদদাতা: গাইবান্ধা প্রতিনিধি

, , ,

0 মন্তব্য(গুলি)

Comments Please