অভিনয়ে এসেই দর্শক হৃদয়ে ঠাঁই নেয়া কে এই রাশেদ সীমান্ত?

অভিনয়ে এসেই দর্শক হৃদয়ে ঠাঁই নেয়া কে এই রাশেদ সীমান্ত
জহুরুল ইসলাম, বিশেষ প্রতিবেদক: 'রাশেদ সীমান্ত' টেলিভিশন নাটকে সবচেয়ে আলোচিত ও প্রিয় মুখ। ২০১৮ সালে 'যেই লাউ সেই কদু' শিরোনামের খণ্ড নাটকে অভিনয়ের মাধ্যমে পথচলা শুরু। এরপর যথাক্রমে অভিনয় করেছেন যেই লাউ সেই কদু-২, বউয়ের দোয়া পরিবহন, বউয়ের দোয়া পরিবহন-২, বরিশাল টু ঢাকা, ভাবির দোকান, ভাবির দোকান-২ এবং সর্বশেষ ঈদুল আযহায় 'মধ্য রাতের সেবা' নাটকে অভিনয় করে বাজিমাৎ করেন। নাটকটিতে সহ অভিনয় শিল্পী ছিলেন অর্ষা।

এই নাটকটি তাঁর অভিনয় ক্যারিয়ার টার্নিং পয়েন্ট। দেশ বরেণ্য নাটক নির্মাতা ও অভিনেতাগণ এবং দর্শকমহলের নিকট তিনি ব্যাপকভাবে প্রশংসিত হচ্ছেন।


এছাড়াও তিনি ঈদুল আযহায় 'জামাই বাজার' শিরোনামে ৭ পর্বের ধারাবাহিক নাটকেও অসাধারণ অভিনয় করেন।

দর্শকদের অকৃত্রিম ভালবাসাকে কিভাবে দেখছেন?  এমন প্রশ্নের জবাবে রাশেদ বলেন, দর্শকদের ভালবাসায় আমি অভিভূত, আপ্লুত,উচ্ছ্বসিত এবং কৃতজ্ঞ।


কে এই রাশেদ সীমান্ত

কে এই রাশেদ সীমান্ত?

তাঁর জন্ম এবং বেড়ে ওঠা রাজধানীর অদূরে টঙ্গীতে। তাঁর দাদা ও নানা বাড়ি ভোলা জেলায়। বরিশালের ভাষায় চমৎকার অভিনয় করেছেন তিনি। এছাড়াও তিনি নোয়াখালী, পাবনা ও জামালপুরের সানন্দবাড়ী, বকশীগঞ্জ,দেওয়ানগঞ্জ পাশের রাজিবপুরের ভাষায় অভিনয় করেছেন।
জামালপুর জেলার সানন্দবাড়ীর মিতালীতে তার ভগ্নিপতির বাসা। সেই সুবাদে ঐ এলাকায় প্রতিবছর তিনি যান।

 তিনি পরিবারের বড় সন্তান। ২০০৪ সালে তিনি টঙ্গীর শহীদ স্মৃতি উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মাধ্যমিক এবং উত্তরার ঢাকা বয়েজ কলেজ থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। অনার্স শেষ করেই তিনি বৈশাখী টেলিভিশনে যোগদান করেন। বর্তমানে তিনি একই প্রতিষ্ঠানে হেড অব মার্কেটিং ইনচার্জ হিসেবে কর্মরত আছেন।


 তিনি বলেন, বৈশাখী টেলিভিশন ডিএম স্যারের অনুপ্রেরণাতেই অভিনয়ে প্রবেশ করি।
এখন অনেক স্বনামধন্য নির্মাতাদের নিকট কাজের অফার পাচ্ছেন এবং ব্যস্ত সময় পার করছেন। জীবনমূখী এবং ভালো গল্প হলে অভিনয় করে যাবেন।

তিনি সর্বদা হাস্যোজ্জ্বল, আন্তরিক, এবং অমায়িক ভদ্রলোক। ব্যক্তি জীবনে তিনি বিবাহিত এবং এক সন্তানের জনক।

 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

Comments Please