সারাদেশের ফিটনেসবিহীন গাড়ির নিবন্ধন বাতিল হচ্ছে: বিআরটিএ

সারাদেশের ফিটনেসবিহীন গাড়ির নিবন্ধন বাতিল হচ্ছে বিআরটিএ

সেবা ডেস্ক: বাংলাদেশের সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮-এর ২৫ ধারা অনুযায়ী যানবাহনের ফিটনেস সার্টিফিকেট থাকা বাধ্যতামূলক। কিন্তু অনেক গাড়িরই ফিটনেস নবায়ন করা হয় না। ১০ বছর অতিক্রম হয়েছে, নবায়নবিহীন অবস্থায় চলছে এমন গাড়ির নিবন্ধন বাতিলের উদ্যোগ নিয়েছে বিআরটিএ।

সংস্থাটি বলছে, আইনের ২৪ ধারা অনুযায়ী এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে তারা। এ জন্য ৩০ জুন পর্যন্ত নবায়নের সুযোগ দেওয়া হয়েছে। এর আগেও নবায়নের জন্য দফায় দফায় সুযোগ দিয়েছে বিআরটিএ। পরিবহন মালিকদের চাপে জরিমানা মওকুফ করেও নবায়নের সুযোগ দেওয়া হয় একাধিকবার। এর পরও ফিটনেস নবায়ন না করায় স্থায়ীভাবে নিবন্ধন বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়েছে বিআরটিএ।

সংস্থাটির সর্বশেষ হিসাব অনুযায়ী, ১০ বছরের অধিক সময় ফিটনেসবিহীন এমন গাড়ির সংখ্যা ৫৬ হাজারের বেশি। দেশে মোট ফিটনেসবিহীন গাড়ি রয়েছে ৪ লাখ ৫৩ হাজার ১৯৪টি। এর মধ্যে বাস ১৩ হাজার ৮৯০, কার্গোভ্যান ১৫৪৪, কাভার্ডভ্যান ৫ হাজার ৫৮৯, ডেলিভারি ভ্যান ৭ হাজার ৫৭, হিউম্যান হলার ১৩ হাজার ৫৪৬, জিপ ৯ হাজার ৬৬০, মাইক্রোবাস ২১ হাজার ৭৮৭, মিনিবাস ৮ হাজার ৭৪৮, পিকআপ ৪৯ হাজার ৮০৮, ট্রাক ৫১ হাজার ৫৭৫, প্রাইভেট কার ৪৬ হাজার ১৩৩, ট্যাক্সিক্যাব ১৬ হাজার ৯৪৫ এবং অটোরিকশা ১ লাখ ৫১ হাজার ৫৫৭টি। এ ছাড়াও ট্যাঙ্কার, ট্রাক্টর, অ্যাম্বুলেন্সসহ বিভিন্ন ফিটনেসবিহীন গাড়ি রয়েছে।

বিআরটিএ পরিচালক (অপারেশন) সীতাংশু শেখর বিশ্বাস জানান, গাড়ির ফিটনেস হালনাগাদ করার জন্য একাধিকবার সুযোগ দেওয়া হয়েছে। সর্বশেষ ৩০ জুন পর্যন্ত সময় দেওয়া হলো।


এদিকে গাড়ির ফিটনেস নবায়নের ব্যাপারেও পরিবর্তন এসেছে। আগে নিবন্ধিত কার্যালয়ে গাড়ি নিয়ে নবায়ন করাতে হতো। এখন বিআরটিএর যে কোনো সার্কেল অফিসে নিলেই গাড়ির ফিটনেস করা যায়। দেখা যেত, রেজিস্ট্রেশনের পর গাড়ি ঢাকার বাইরে কোনো এলাকায় চলাচল করছে। ফিটনেস নবায়নের জন্য আবার আনা ‘কঠিন’ বিবেচনায় সার্কেল অফিসে হাজির করতে নিরুৎসাহী থাকেন গাড়ি মালিকরা। বিকল্প পন্থায় ‘আন সিন’ গাড়ি নবায়নের জন্য তখন অনৈতিক পথ খোঁজেন। আবার গাড়ি সার্কেল অফিসের কাছাকাছি থাকলেও উপার্জনের ক্ষতি বা অন্য কাজে ব্যস্ত রাখার কারণেও গাড়ি হাজির করতে অনাগ্রহ দেখা যায়। কেউ কেউ সময় বাঁচানোর অজুহাত দেখান। এ প্রেক্ষাপটে সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮-এর ১২৪ (১) (খ)-এর ক্ষমতাবলে বিআরটিএ এর যে কোনো সার্কেল থেকে ফিটনেস নবায়নের সুযোগ দিয়ে নতুন প্রজ্ঞাপন জারি করেছে সরকার।

তা ছাড়া ব্যক্তিগত গাড়ি নবায়নে আরও সুযোগ; এক বছরের পরিবর্তে দুই বছর পরপর নবায়ন করার বিধান চালু করেছে। সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮-এর ধারা ১২৪ (১) (থ) অনুযায়ী সরকার ফিটনেস নবায়নের এ সুযোগ দিল। সেখানে বলা হয়েছে, এসব গাড়ি প্রথমবার তৈরির তারিখ থেকে ৫ বছর এবং পরবর্তীতে দুই বছর অন্তর ফিটনেস নবায়নের সুযোগ দেওয়া হলো। তথাপি ফিটনেস নবায়ন করতে উদ্যোগী না হওয়ায় স্থায়ীভাবে নিবন্ধন বাতিলের দিকে যাচ্ছে বিআরটিএ।

সরকারের নতুন আইন অনুযায়ী, ফিটনেস খেলাপি হলে সর্বোচ্চ ২৫ হাজার টাকা জরিমানা এবং ৬ মাসের কারাদ-ের বিধান রয়েছে। ফিটনেস সনদ দিতে হলে সংশ্লিষ্ট যানবাহন কারিগরি ত্রুটিমুক্ত হতে হবে। খতিয়ে দেখতে হয় গাড়ির ৬০টি দিক। এর মধ্যে রয়েছে ইঞ্জিন অ্যাসেম্বলি (পাওয়ার ইউনিট), ধোঁয়া নির্গমনের অবস্থা, গাড়ির ভেতর ও বাইরের খুঁটিনাটি সব দিক, চালকের নিয়ন্ত্রণযন্ত্রের মান, স্টিয়ারিং ও ব্রেক সিস্টেমের ধরন এবং মান, ব্রেক সিস্টেমের সব দিক, ইঞ্জিন ও চেসিসের অবস্থান ও মান, সব ধরনের বাতির কার্যকারিতা, মিটার, ইন্ডিকেটর, এক্সেল লোড, পাওয়ার স্টিয়ারিং। এসব পরিদর্শনের কাজ শেষ করার পর মেলার কথা ফিটনেস সনদ। কিন্তু চোখের দেখায় অল্প সময়ের মধ্যেই ফিটনেসের বৈধতা পাওয়ার অভিযোগ আছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের জন্য ৫টি ভেহিক্যাল ইন্সপেকশন সেন্টার (ভিআইসি) স্থাপন করা হয়। এর মধ্যে চালুর আগেই সব কটি অচল হয়ে পড়ে। পরবর্তীতে একটি পুনরায় মেরামত করে একমাত্র মিরপুর অফিসে চালু করা হয়। বাণিজ্যিক পরিবহন যাচাইয়ের কাজটি করে এই ভিআইসি। আর ব্যক্তিগত ও হালকা যানবাহনের ফিটনেস পরীক্ষা করা হয় খালি চোখে। ভিআইসিতে পরিদর্শনের ধাপে চার ধরনের পরীক্ষা হয়। ওজন স্কেলে ‘এক্সেল লোড’ পরীক্ষা করা হয়। দেখা হয় টায়ারের ঘনত্ব। এরপর পরীক্ষা করা হয় গতি। সবশেষে গাড়ির গতিরোধক বা ব্রেক পরীক্ষা করা হয়। পরিদর্শন ধাপটি শেষ করতে অন্তত ১৮-২০ মিনিট লাগার কথা। ক্ষেত্রবিশেষে এক মিনিটেই শেষ হয় যাচাইপর্ব। তা ছাড়া নবায়নের ফি দেওয়াই এখন গাড়ির ফিটনেসের অন্যতম মানদ- হিসেবে বিবেচ্য। অবশ্য এটি বন্ধে বিআরটিএর বর্তমান প্রশাসন উদ্যোগ নিয়েছে।

ভিডিও নিউজ


-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন


0 comments

Comments Please

আপনার মূল্যবান মতামতের জন্য সেবা হট নিউজ পরিবারের পক্ষ থেকে আপনাকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি।

সেবা হট নিউজ : সত্য প্রকাশে আপোষহীন