দেওয়ানগঞ্জে ১৭২ ভূমি ও গৃহহীন পরিবার পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার

দেওয়ানগঞ্জে ১৭২ ভূমি ও গৃহহীন পরিবার পেলেন প্রধানমন্ত্রীর উপহার


ফরিদুল ইসলাম ফরিদ, দেওয়ানগঞ্জ (জামালপুর) প্রতিনিধি:  মুজিব শতবর্ষ উপলক্ষে জামালপুরের দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার সরকারি আধা পাকা ১৭২ টি ঘর পেলেন ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। ২৩ জানুয়ারী শনিবার সকালে ভূমিহীন ও গৃহহীনদের মুখে হাসি ফোটাতেই জমি ও গৃহ প্রদান কর্মসূচি ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদ হলরুমে ভিডিও কনফারেন্সের শেষে উপজেলার ১৭২ টি ঘর ও জমির প্রয়োজনীয় কাগজপত্র হস্তান্তর করা হয় সুবিধাভোগীদের নিকট। হস্তান্তর অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ সোলায়মান হোসেন সোলাই। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ এ কে এম আব্দুল্লাহ বিন রশীদ এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি ইস্তিয়াক হোসেন দিদার, সাধারণ সম্পাদক মোঃ আবুল কালাম আজাদ, সাবেক মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার খাইরুল ইসলাম, পৌর মেয়র শাহনেওয়াজ শাহান শাহ্ , উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান দেওয়ান ইমরান, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান তাসলিমা  আক্তার লিপি, মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মুহাম্মদ মহব্বত কবীর, দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ আহসান হাবীব, প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা এনামুল হাসান, পরিকল্পনা মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি আবুল কালাম আজাদ এমপির প্রতিনিধি মুস্তাকিম বিল্লাহ শিপন, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী শ্যামল চন্দ্র সাহা, ইউপি চেয়ারম্যান মমতাজ উদ্দিন আহম্মেদ, সেলিম খান, সোহেল রানা, দেওয়ানগঞ্জ প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক মদন মোহন ঘোষ, ইউনিয়ন ভূমি সহকারী কর্মকর্তা (ভারপ্রাপ্ত) সোলায়মান হোসেন। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন স্থানীয় নেতৃবৃন্দ ও সরকারি কর্মকর্তা কর্মচারী। জানা গেছে ২ কক্ষ বিশিষ্ট প্রতিটি আধা পাকা ঘর নির্মাণে সরকারের ব্যয় হচ্ছে ১ লক্ষ ৭১ হাজার টাকা। দেওয়ানগঞ্জ উপজেলায় ১৭২ টি ঘর নির্মাণে মোট ব্যয় হচ্ছে ২কোটি ৯৪ লক্ষ ১২ হাজার টাকা।

শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।