নওগাঁয় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ফাঁকা গুলি, পুলিশসহ আহত অর্ধশতাধিক

নওগাঁয় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ফাঁকা গুলি, পুলিশসহ আহত অর্ধশতাধিক


স্টাফ রিপোর্টার: নওগাঁয় পুলিশের সঙ্গে বিএনপির নেতা-কর্মীদের সংঘর্ষ হয়েছে। এতে বিএনপির একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছে বলে জানিয়েছে নেতারা। এ ঘটনায় ৭ পুলিশসহ আহত হয়েছেন অর্ধশতাধিক। আহতরা বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। 

মঙ্গলবার দুপুরে নওগাঁ শহরের কেডির মোড়ে বিএনপির দলীয় কার্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশ ফাঁকা গুলি ও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। 

জানা গেছে, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে মঙ্গলবার দুপুরে মিছিল বের করে জেলা বিএনপি ও সহযোগী সংগঠন। শহরের নওযোয়ান মাঠ এলাকা ও শহরের হোটেল পট্টি থেকে মিছিল বের হয়ে কেডির মোড় জেলা বিএনপির দলীয় কার্যলয়ে সমবেত হয়ে উস্কানিমূলক স্লোগান দেয়। এসময় পুলিশ ও নেতাকর্মীদের বাকবিতণ্ডার একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া শুরু হয়। পরিস্থিতি উত্তপ্ত হলে পুলিশের পক্ষ থেকে ফাঁকা গুলি ও রাবার বুলেট ছোড়া হয়। পুলিশের ওপর হামলা করে বিএনপির কর্মীরা। ছত্রভঙ্গ করতে পুলিশ লাঠিচার্জ করে। সংঘর্ষে ৭ পুলিশসহ অন্তত ৫০ জন বিএনপি নেতা-কর্মীরা আহত হয়েছে। উত্তেজিত নেতাকর্মীরা দলীয় কার্যালয়ের আশেপাশে বেশ কয়েকটি দোকান ভাংচুর করে। রাস্তার পাশে থাকা একটি মোটর সাইকেল ও একটি প্রাইভেটকার ভাংচুরের ঘটনা ঘটে। পরে নওগাঁ পুলিশ লাইন থেকে অতিরিক্ত পুলিশ সদস্যরা এসে পরিস্থিততি নিয়ন্ত্রন করার চেষ্টা করা হয়।

জেলা যুবদলের সভাপতি বায়োজিদ হোসেন পলাশ জানান, কেন্দ্রীয় কর্মসূচির অংশ হিসেবে নওগাঁ দলীয় কর্যালয়ের সামনে শান্তিপূর্ণ বিক্ষোভ মিছিলে পুলিশ বাঁধা দেয় এবং নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালায়। এতে একজন গুলিবিদ্ধ হয়েছেন এবং অন্তত ৫০ জন নেতাকর্মী গুরুতর আহত হয়ে হাসপাতাল ও আঘাত প্রাপ্তরা বিভিন্ন ক্লিনিকে চিকিৎসাধীন রয়েছেন বলে দাবি করেন। তিনি বলেন, জেলা যুবদলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদ কহিনুর ইসলাম মিলিকে গুলিবিদ্ধ গুরুতর অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। 

জেলা বিএনপির সাবেক সাধারন সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম ধলু বলেন, বিভিন্ন এলাকা থেকে ছোট ছোট মিছিল বিএনপির অফিসে এসে একত্রিত হয়। পরে বিক্ষোভ মিছিল বের করলে পুলিশ লাঠিচার্জ করে ছত্রভঙ্গ করে দেয়। রাবার বুলেট ও টিয়ারশেল নিক্ষেপের ঘটনা ঘটেছে। আমাদের অর্ধশত নেতাকর্মী আহত হয়েছে।

নওগাঁ সদর থানার ওসি নজরুল ইসলাম জুয়েল বলেন, মিছিল বের করতে নিষেধ করা হয়েছিল। বিএনপির নেতাকর্মীদের হামলায় কয়েকজন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছে। 

নওগাঁর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (প্রশাসন) রকিবুল আক্তার বলেন, বিএনপির নেতাকর্মীরা উস্কানিমূলক স্লোগান দিয়ে অতর্কিতভাবে পুলিশের ওপর হামলা করে। বর্তমানে পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে।  



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।

Dara Computer Laptops