ধুনটে প্রধান শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ

ধুনটে প্রধান শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ



ধুনট প্রতিনিধি: বগুড়ার ধুনট উপজেলায় অভিভাবক সদস্য হিসেবে ভোটার তালিকায় নাম অন্তর্ভূক্ত না করায় সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কার্যালয়ে প্রবেশ করে প্রধান শিক্ষককে মারধরের অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার বড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।
 
থানা পুলিশ ও অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, উপজেলার বড়িয়া গ্রামের মোজাহার আলীর ছেলে আব্দুস ছোবাহান বড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক। অন্যান্য দিনের ন্যায় শনিবার সকাল ৯টার দিকে তিনি বিদ্যালয়ের কার্যালয়ে বসে দাপ্তরিক কাজকর্ম করতে থাকেন। ওই দিন সকাল সাড়ে ১১টার দিকে একই গ্রামের মঞ্জুরুল মোর্শেদ মজনু নামে এক অভিভাবক তার লোকজন নিয়ে বিদ্যালয় কার্যালয়ে প্রবেশ করে।

এরপর মঞ্জুরুল মোর্শেদ মজনু তার মেয়েকে ভর্তি করে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের ভোটার তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করার জন্য প্রধান শিক্ষকে বলেন। কিন্ত অবৈধভাবে ভোটার তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করার সুযোগ নেই বলায় প্রধান শিক্ষককের উপর ক্ষব্ধ হন মঞ্জুরুল। এক পর্যায়ে মঞ্জুরুল ও তার লোকজন প্রধান শিক্ষককে মারধর করে।

এ ঘটনায় প্রধান শিক্ষক আব্দুস ছোবাহান বাদি হয়ে ধুনট থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। ওই অভিযোগে মঞ্জুরুল মোর্শেদ মজনু সহ ৪ জনকে আসামী করা হয়েছে।

এ বিষয়ে মঞ্জুরুল মোর্শেদ মজনু বলেন, প্রধান শিক্ষক নিময় বর্হিভুতভাবে বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটি গঠনের প্রক্রিয়া করছেন। আমাকে অভিভাবক হিসেবে ভোটার তালিকায় নাম অর্ন্তভুক্ত করার জন্য বলেছি। কিন্ত প্রধান শিক্ষক রাজি না হওয়ায় কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে ধাক্কাধাক্কির ঘটনা ঘটেছে।

ধুনট থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) জাহিদুল হক বলেন, অভিযোগের প্রেক্ষিতে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করা হয়েছে। এ বিষয়টি তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।