কাজিপুরের আঠারো হাজার পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ সহায়তা

কাজিপুরের আঠারো হাজার পরিবার পাচ্ছে প্রধানমন্ত্রীর ঈদ সহায়তা



কাজিপুর প্রতিনিধি: করোনাকালের এই চরম দুঃসময়েও মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে দেওয়া ঈদ সহায়তার চাল পাচ্ছে সিরাজঞ্জের কাজিপুর উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন ও ১টি পৌরসভার ১৭ হাজার ৯৩৩টি অসহায় ও হতদরিদ্র পরিবার। 

পবিত্র ঈদুল আযহা উপলক্ষে প্রতিটি পরিবার পাচ্ছে বিশেষ ভিজিএফ’র ১০ কেজি করে চাল । 

উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় স‚ত্রে জানা গেছে, উপজেলার ১২টি ইউনিয়ন এবং ১টি পৌরসভার তথ্য যাচাই বাছাই করে অসহায় ও হতদরিদ্র পরিবারকে নির্বাচন শেষে প্রত্যেক পরিবারকে ১০ কেজি করে চাল বিতরণ শুরু হয়েছে। 

 যমুনা নদী দ্বারা বিভক্ত কাজিপুরের বিড়া অঞ্চলে অবস্থিত সোনামুখী ইউনিয়নে ১ হাজার ৫০০ টি, চালিতাডাঙ্গা ইউনিয়নে ১হাজার৫০০ টি, গান্ধাইল ইউনিয়নে ১ হাজার ৪০০টি, শুভগাছা ইউনিয়নে ৯শ ৫০টি, কাজিপুর ইউনিয়নে ১ হাজার ১৮০ টি, মাইজবাড়ী ইউনিয়নে ১ হাজার ৫০০টি, পরিবার এই সহায়তা পাচ্ছে। 

আর চরাঞ্চলের খাসরাজবাড়ী ইউনিয়নে ৯শ টি, চরগিরিশ ইউনিয়নের ১ হাজার ২৫০ টি, নাটুয়ারপাড়া ইউনিয়নের ১ হাজার ২০০ টি, তেকানি ইউনিয়নে ১ হাজার ৫০টি, নিশ্চিন্তপুর ইউনিয়নে ১ হাজার ১০০ টি, মনসুরনগর ইউনিয়নে ১ হাজার ৩২২টি এবং কাজিপুর পৌরসভায ৩ হাজার ৮১ টি পরিবার এ সহায়তা পাচ্ছে। 

এ বিষয়ে কাজিপুর উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাসোসিয়েশনের সভাপতি ও উপজেলা আ.লীগের সভাপতি আলহাজ্ব শওকত হোসেন জানান, করোনার এই কঠিন সময়েও ঈদুল আযহা উপলক্ষে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অসহায়, দুস্থদের পাশে রয়েছেন। 

এ কারণে তার নির্দেশনা মোতাবেক আমরা অসহায় ও দরিদ্রদের মাঝে বিশেষ ভিজিএফে’র এই চাল সহায়তা দিয়ে যাচ্ছি। করোনার কথা বিবেচনা করে আমরা প্রতিটি ওয়ার্ডে চাল নিয়ে গিয়ে সুবিধাভোগীদের দিচ্ছি। এতে করে তাদের পরিবহন খরচ সাশ্রয়ের পাশাপাশি স্বাস্থ্যঝুঁকিও হ্রাস পেয়েছে। 
কাজিপুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা একেএম শাহা আলম মোল­া জানান, মোট ১৭৯.৩৩৩ মেট্রিক টন চাল বরাদ্দ পাওয়া গেছে। বরাদ্দকৃত ঈদ সহায়তার বিশেষ ভিজিএফ’র চাল যাতে প্রকৃত সুবিধাভোগীরা পায় সে বিষয়ে কড়া নজরদারী রয়েছে। 

কাজিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জাহিদ হাসাস সিদ্দিকী জানান, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা অনুযায়ী আমরা প্রতিটি ইউনিয়নে খোঁজ নিচ্ছি। কাজিপুর পৌর সভার একটি ওয়ার্ডের বরাদ্দকৃত চাল কালোবাজারে যাচ্ছে শুনে আমরা অভিযান চালিয়ে উদ্ধার করেছি।এর ফলে প্রকৃত সুবিধাভোগীরাই উপকৃত হবে।
 

শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।