দুর্নীতির অভিযোগে অস্ট্রেলিয়ার চিফ মিনিস্টারের পদত্যাগ

দুর্নীতির অভিযোগে অস্ট্রেলিয়ার চিফ মিনিস্টারের পদত্যাগ



সেবা ডেস্ক: ক্ষমতার অপব্যবহার ও দুর্নীতির অভিযোগের জেরে পদত্যাগ করেছেন অস্ট্রেলিয়ার নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের চিফ মিনিস্টার গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ান।

শুক্রবার এক সংবাদ সম্মেলনে চিফ মিনিস্টার ও দলের রাজ্যপ্রধানের পদ থেকে সরে যাওয়ার ঘোষণা দেন তিনি। তবে রাজ্য সংসদের সদস্য হিসেবে এখনো বহাল তিনি।

গ্ল্যাডিস জানান, তার বিরুদ্ধে আসা অভিযোগের সুষ্ঠু তদন্তের স্বার্থে এ পদত্যাগের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। 

চলতি মাসের শেষ নাগাদ গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ানের বিরুদ্ধে আসা অভিযোগের তদন্ত শেষ হবে।

অস্ট্রেলিয়ার দুর্নীতি তদন্ত কমিশনের কাছে অভিযোগ রয়েছে, ব্যক্তিস্বার্থে সরকার ও দলীয় ক্ষমতা ব্যবহার করেছিলেন গ্ল্যাডিস।

এক প্রতিবেদনে বলা হয়, রাজ্যের সাবেক সাংসদ ড্যারিল ম্যাগুইয়ারের দুটি প্রতিষ্ঠানকে সরকারি ক্ষমতাবলে অনুদান নিয়ে দিয়েছিলেন গ্ল্যাডিস। 

২০১৬-১৭ অর্থবছরে অস্ট্রেলিয়ান ক্লে টার্গেট অ্যাসোসিয়েশন ও ২০১৮ সালে ওয়াগায় রিভারিনা কনজারভেটরিয়াম অব মিউজিক নামের দুটি প্রতিষ্ঠানে প্রায় ছয় লাখ অস্ট্রেলীয় ডলার অনুদান নিয়ে দেওয়া হয়। 

যদিও প্রথমটির সময় নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের কোষাধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্বে ছিলেন গ্ল্যাডিস। 

অন্যদিকে, তার সঙ্গে সাবেক সাংসদ ড্যারিল ম্যাগুইয়ারের প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলেও উল্লেখ রয়েছে। 

ড্যারিল ২০১৮ সালে তার বিরুদ্ধে আসা দুর্নীতির অভিযোগ প্রমাণিত হলে পদত্যাগ করেছিলেন।

চিফ মিনিস্টার ক্ষমতার প্রভাব খাটিয়ে দুর্নীতিকে প্রশ্রয় ও উৎসাহিত করেছেন কি না, তা খতিয়ে দেখবে কমিশন। 

১৮ অক্টোবর থেকে আনুষ্ঠানিকভাবে তদন্তের কাজ শুরু হবে এবং ১০ দিনের মধ্যে চূড়ান্ত প্রতিবেদন প্রকাশ করবে কমিশন। 

গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ানের বিরুদ্ধে উত্থাপিত অভিযোগ প্রমাণিত হলে রাজ্য সংসদ থেকেও তাকে পদত্যাগ করতে হবে।

ক্ষমতাসীন লিবারেল পার্টি নিউ সাউথ ওয়েলস রাজ্যের জন্য নতুন নেতা নির্বাচনের পরই গ্ল্যাডিস বেরেজিক্লিয়ানের পদত্যাগ কার্যকর হবে। তিনি ছিলেন এই রাজ্যের ৪৫তম মুখ্যমন্ত্রী। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।