বকশীগঞ্জে অপপ্রচারের অভিযোগ মাসুম প্রমাণিকের বিরুদ্ধে !

বকশীগঞ্জে অপপ্রচারের অভিযোগ মাসুম প্রমাণিকের বিরুদ্ধে !



বকশীগঞ্জ প্রতিনিধি : জামালপুরের বকশীগঞ্জে নির্বাচন যতই ঘনিয়ে আসছে ততই প্রচার-প্রচারণা জমে উঠছে। কিন্তু প্রচার প্রচারণার মধ্যেই প্রতিদ্ব›িদ্ব প্রার্থীদের বিরুদ্ধে নানাভাবে বিষোদগার করা হচ্ছে। 

এরকমই অভিযোগ উঠেছে ২ নং বগারচর ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোসাদ্দেকুর রহমান প্রমাণিক মাসুমের বিরুদ্ধে। 

মাসুম প্রমাণিক গত ২০ ডিসেম্বর আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী গাজী মো. হোসেন আলীর বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ দেওয়ার পর বগারচরে মিশ্র প্রতিক্রিয়া শুরু হয়েছে। মাসুম প্রমাণিক প্রতিদিনই গণসংযোগ, নির্বিঘেœ প্রচারণা চালালেও উল্টো আওয়ামী লীগের প্রার্থীকে হয়রানি করতে অভিযোগ দায়ের করেছেন। অথচ তার বিরুদ্ধে অভিযোগের শেষ নেই। 

বগারচর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি গাজী মো. হোসেন আলী এবার বগারচর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগের মনোনয়ন পেয়েছেন। গাজী হোসেন আলী দীর্ঘদিন ধরে আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত রয়েছেন। তিনি একজন পরিচ্ছন্ন ব্যক্তি হিসেবে এলাকায় ব্যাপক পরিচিত। 

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সার্বিক পরিস্থিতি বিবেচনা করে তাকে নৌকা প্রতীক দিয়েছেন। তিনি নৌকা পাওয়ায় তৃণমূল ও সাধারণ জনগণ খুশি হলেও বিমুখ হয়ে পড়েন কিছু সুবিধাবাদী লোক। তার জনপ্রিয়তার প্রতি ঈর্ষান্বিত হয়ে এবং তার বিজয় ঠেকাতে ইতোমধ্যে মাঠে নেমেছেন স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোসাদ্দেকুর রহমান মাসুম প্রমাণিক।

কিন্তু আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের দাবি মাসুম প্রমাণিক উড়ে এসে জুড়ে বসে বগারচর ইউনিয়ন নিয়ে মনগড়া মিথ্যাচার করে যাচ্ছেন। শুধু মিথ্যাচারই নয় তিনি নির্বাচনী সভায় ফেসবুক লাইভে ভোটারদের বিভ্রান্ত করতে বক্তব্য দিয়ে যাচ্ছেন। সেই সাথে তার বিরুদ্ধে নির্বাচনী আচরণ বিধি লঙ্ঘন করারও অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা। 

তিনি আচরণ বিধি লঙ্ঘন করে ভোটারদের মিথ্যা প্রতিশ্রæতি ও প্রলোভন দেখাচ্ছেন। মসজিদ নির্মাণ, নলকূপ বিতরণ, আগামি ৫ বছরে আরো অন্যান্য কি কি সুবিধা দেবে তার বিনিময়ে ভোট চেয়ে যাচ্ছেন তিনি। এছাড়াও তিনি গেঞ্জিতে তার নির্বাচনী প্রতীক আনারসের রঙিন ছবি দিয়ে প্রচারণা চালাচ্ছেন। অথচ তিনি মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে বিভ্রান্ত করছেন। 

আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীরা জানান, তিনি থাকেন আমেরিকায়। তার দ্বৈত নাগরিকতা নিয়ে রিটার্নিং কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে।

মাসুম প্রমাণিক নিজে ভোটারদের মাঝে টাকার লোভ দেখিয়ে ভোট নেওয়ার চেষ্টা করছেন। জনগণকে ভুলিয়ে ভালিয়ে ও মিথ্যা প্রলোভন দেখিয়ে চেয়ারম্যান হওয়ার জন্য কৌশল অবলম্বন করছে। তাই তিনি জনগণকে বোকা বানাতে এবার ভোটে দাড়িয়েছেন। 

তার বাড়ি আলীর পাড়া গ্রামে হলেও তিনি মুলত আমেরিকা প্রবাসী। এলাকার কিছু চিহ্নিত অসাধু ব্যক্তি, বিভিন্ন মামলার আসামিদের নিয়ে তিনি প্রচার-প্রচারণা চালিয়ে যাচ্ছেন। 

আওয়ামী লীগের নেতা কর্মীদের দাবি , নিশ্চিত পরাজয় জেনে মাসুম প্রমাণিক আবোলতাবল বকছেন বিভিন্ন সভায়।

অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে এবং আওয়ামী লীগকে বেকায়দায় ফেলতে তিনি অপপ্রচারে লিপ্ত রয়েছেন বলে জানান আওয়ামী লীগের চেয়ারম্যান প্রার্থী গাজী মো. হোসেন আলী। 

এব্যাপারে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোসাদ্দেকুর রহমান মাসুমের সাথে ফোনে যোগাযোগ করা হলে তার মোবাইল ফোন বন্ধ পাওয়া যায়।

 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।