দেশের শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান খুলতে জোর প্রস্তুতি

দেশের শিক্ষা-প্রতিষ্ঠান খুলতে জোর প্রস্তুতি



সেবা ডেস্ক: দেশে প্রাণঘাতি ভাইরাস করোনার সংক্রমণ কমে যাওয়ায় শিক্ষা-প্রতিষ্ঠানে নতুন করে আর ছুটি বাড়ছে না। আগামী ২১ ফেব্রুয়ারির পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হতে পারে বলে শিক্ষা মন্ত্রণালয় সূত্রে জানা গেছে। এ লক্ষ্যে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে শুরু হয়েছে ধোয়া-মোছার কাজ। 


শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, নতুন করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি আর না বাড়ানোর পক্ষে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। ফলে ২১ ফেব্রুয়ারি পর থেকে আগের মতো স্কুল-কলেজ চালু হতে পারে। তবে এ নিয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি।



 

মাধ্যমিক ও উচ্চশিক্ষা বিভাগের (কলেজ) অতিরিক্ত সচিব মু. ফজলুর রহমান বলেন, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধে নতুন  আর কোনো বিধিনিষেধ জারি হয়নি। তবে কবে স্কুল-কলেজ খুলে দেওয়া হবে, সে বিষয়েও এখনো কোনো নির্দেশনা আসেনি। 


প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব মো. ফারুক আলম বলেন, স্কুল খুলে দেওয়ার বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে আগামীকাল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে সচিব পর্যায়ের বৈঠক হবে। সেখান থেকে হয়তো কোনো সিদ্ধান্ত আসতে পারে।


এদিকে, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে চলছে ধোয়া-মোছার কাজ। সেনপাড়া পর্বত সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মিরপুর ১০ এ সরেজমিনে দেখা যায়, স্কুল প্রাঙ্গণে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ চলছে। শ্রেণিকক্ষগুলোতে ধোয়া-মোছার কাজ করতে দেখা গেছে। ন্যাশনাল বাংলা উচ্চ বিদ্যালয় ও শ্যামলী আইডিয়াল টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ ঘুরেও দেখা গেছে একই চিত্র। 


ঐ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোর কয়েকজন শিক্ষক জানান, করোনা সংক্রমণ কমে যাওয়ায় স্কুল খুলে দেওয়ার ইঙ্গিত দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ও শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সেই লক্ষ্যে প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। নির্দেশনা এলেই খুলে দেওয়া হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান।


প্রসঙ্গত, করোনা পরিস্থিতি ঊর্ধ্বমুখী হওয়ায় গত ২১ জানুয়ারি থেকে দুই সপ্তাহের জন্য শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধের ঘোষণা দেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক। সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, ২১ জানুয়ারি থেকে ৬ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ ছিল। পরে ২ ফেব্রুয়ারি দুই সপ্তাহ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ানোর ঘোষণা দেন শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি। সে অনুযায়ী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি আগামী ২১ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত বাড়িয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।


গত রোববার এইচএসসির ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, পরিস্থিতির ওপর নির্ভর করে চলতি মাসের শেষের দিকে দেশের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া সম্ভব হবে।


এর আগে, এক অনুষ্ঠানে শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেছেন, নতুন করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের আর ছুটি বাড়ানো হচ্ছে না। স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে।


শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমরা দেখতে পাচ্ছি করোনার সংক্রমণের হার কমছে। এটা ভালো খবর। আশা করছি, এই হার আরো কমবে। শিক্ষার্থীদের শিক্ষাজীবন আর যেন ব্যাহত না হয়, সেজন্য শ্রেণিকক্ষে যে পাঠদান বন্ধ আছে সেটা আর বাড়াতে হবে না।


এদিকে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক গতকাল এক অনুষ্ঠানে বলেছেন, মহামারি করোনাভাইরাসের সংক্রমণ বেড়ে যাওয়ায় দেশের সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়। তবে সংক্রমণ কমতে শুরু করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, সংক্রমণ কমে গেলে চলতি মাসের শেষের দিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলে দেওয়া হবে।


তিনি বলেন, ২১ ফেব্রুয়ারির পর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার বিষয়ে শিক্ষামন্ত্রী কথা বলছেন। এতে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের কোনো আপত্তি নেই। তবে আমাদের পরামর্শ থাকবে, স্বাস্থ্যবিধি মেনে যেন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলা হয়। আর স্কুল-কলেজের যেসব ছেলে-মেয়ে এখনো টিকা নেয়নি, তারা যেন দ্রুত সময়ের মধ্যে করোনার টিকা নিয়ে নেয়। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।