পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের কমিটিকে বিতর্কিত করতে গভীর ষড়যন্ত্র

পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের কমিটিকে বিতর্কিত করতে গভীর ষড়যন্ত্র



 : বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন শফিক গত ১৩ মার্চে পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের কাউন্সিলে যে কমিটি উপহার দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করেছেন। 


আর সকল বিতর্কিত উর্দ্ধে  স্বচ্ছ ও সুযোগ্য ব্যক্তিদের দিয়ে উপজেলায় সুন্দর একটি কমিটি সঠিক নেতৃত্ব উপহার দেওয়াটা যারা মানতে পরেনি। তারাই সাখাওয়াত হোসেন শফিক এর এ সিদ্ধান্ত কে বিতর্কিত করতে পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মহিবুল হাসান মুকিত কে নিয়ে অপপ্রচার চালাচ্ছেন। এবং নবগঠিত উপজেলা আওয়ামীলীগের কমিটিকে বিতর্কিত করতে উঠে পড়ে লেগেছেন তারা। তাদের নিয়ন্ত্রনাধীন ছাত্রনেতাগণ নিজ নিজ ফেসবুকে মনগড়া পোস্ট চালিয়ে যাচ্ছেন। আজ যারা মুকিতের বিপক্ষে যারা অডিও বার্তায় মন্তব্য করছেন তাদের আপন ভাইয়েরা কেউ বিএনপি নেতাছিলো কেউবা জামাতের রাজনীতিতে সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলো।


মাহিবুল হাসান মুকিত ছাত্র রাজনীতির মাঠ হতে বেড়ে উঠা একজন মুজিব সৈনিক তার আপন দুই খালাতো ভাই মহদীপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক। মা জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের সহ সভাপতি তবুও তাকে নিয়ে রাজনীতির শেষ নেই। যেসব দলের কথা বলা হচ্ছে সেসব দলের একটি কমিটিতে তাদের পরিবারের কোন সদস্যের অস্তিত্ব নেই৷


আসুন অপপ্রচার কারিদের প্রতিহত করি সকল ষরযন্ত্র রোধ করি। উত্তরবঙ্গের দায়িত্বপ্রাপ্ত আওয়ামীলীগ নেতা সাখাওয়াত হোসেন শফিক তার বুদ্ধিমত্তা ও সর্বোচ্চ মেধা দিয়েই পলাশবাড়ী উপজেলা আওয়ামীলীগের ৫ সদস্যের কমিটি দিয়েছেন।  এ জন্য সাখাওয়াত হোসেন শফিক  কে ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন সর্বস্তরের দলীয় নেতাকর্মীগণ ও বিভিন্ন মহল।


আজ কিছু স্বার্থনেষী মহল নিজেদের রাজনীতির জাহিড় করতে এবং স্থানীয় ক্ষমতার বড়াই দেখাতে রাজনৈতিক কৌশল অবলম্বন করেছেন। আজ যারা রাজনীতি করে শুধু নিজেদের গড়তে ব্যস্ত ছিলেন তারাই আজ গভীর এ ষড়যন্ত্রে লিপ্ত আছেন।



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।