শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ, আবারো বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থী

শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ, আবারো বিক্ষুদ্ধ শিক্ষার্থী



 : কুড়িগ্রামের রাজীবপুর সরকারি মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব আজিম উদ্দিন নিজের স্কুলের ১৫ শিক্ষার্থীর বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করার খবরে সাধারণ শিক্ষার্থীরা আবারো রাস্তায় বেরিয়ে বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশ করেছে। 

স্কুলের কয়েকশ’ সাধারণ শিক্ষার্থী বিক্ষোভ মিছিল নিয়ে উপজেলা শহর প্রদক্ষিন করে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কার্যালয়ে উপস্থিত ওই প্রধান শিক্ষকের অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ তুলে ধরে তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানানো হয়।পরে উপজেলা পরিষদ ভবনের সামনে অনুষ্ঠিত এক সমাবেশে সাধারণ শিক্ষার্থীরা প্রধান শিক্ষকের অনিয়ম দুর্নীতির চিত্র তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন। এসময় শিক্ষার্থী প্রধান শিক্ষকের পদ থেকে তাকে দ্রæত বরখাস্তের দাবি জানায়। সাধারণ শিক্ষার্থীদের সঙ্গে যোগ দেয় উপজেলা ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি খায়রুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক বায়েজিদ বিজয় সাধারণ শিক্ষার্থীদের অধিকার আদায়ে অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষককে স্কুল থেকে বহিস্কারের দাবি জানিয়ে বক্তব্য রাখে।

এদিকে অন্যায় দুর্নীতির প্রতিবাদকারিদের বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেও চুপ থাকেননি অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষক। নিজের স্কুলের ছাত্রদেরকে সন্ত্রাসী আখ্যায়িত করে তাদের গ্রেপ্তারের দাবি করে প্রধান শিক্ষক আজিম উদ্দিন স্কুলের ছাত্রীদের ভয় দেখিয়ে জোরপূর্বক রাস্তায় বের করে বিক্ষোভ মিছিল করতে বাধ্য করায়। প্রধান শিক্ষকের এমন ঘটনায় এলাকায় অভিভাবক ও সাধারণ মানুষের মাঝে ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে।

এ প্রসঙ্গে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা অমিত চক্রবর্তি বলেন, ‘সরকারের চাকরি করে নিজের স্কুলের ছাত্রদের বিরুদ্ধে থানায় মামলা এবং ভয় দেখিয়ে ছাত্রীদের নিয়ে রাস্তায় বেরিয়ে তিনি চাকরিবিধি লঙ্ঘন করেছেন। বিধি বহির্ভূত ভাবে অর্ধ বার্ষিক পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি আদায়ের জন্য অভিযুক্ত প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে তদন্ত চলছে। তার মধ্যে নিজের স্কুলের ছাত্রদের বিরুদ্ধে মিছিল করার ঘটনায় তার বিরুদ্ধে প্রতিবেদন দেয়া হবে উদ্বর্তন কর্তৃপক্ষের কাছে।’

উল্লেখ্য যে, শনিবার স্কুলে পরীক্ষা শুরুর আগমুহুর্তে পরীক্ষায় অতিরিক্ত ফি নিয়ে শিক্ষকদের সঙ্গে বিরোধের সাধারণ শিক্ষার্থীরা বিক্ষোভ মিছিল করে এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে অভিযোগ দায়ের করে। অভিযোগ পাওয়া গেছে সরকারি নিয়ম বর্হিভূত ভাবে প্রধান শিক্ষক তার একক সিদ্ধান্তে ৬ষ্ঠ শ্রেণি থেকে পরীক্ষার ফি বাবদ ১৪৫০ টাকা আর ৮ম ও ৯ম শ্রেণির জন্য ১৫০০ টাকা করে আদায় করে। অতিরিক্ত ফি দিতে না পারার কারনে বেশ কিছু ছাত্রকে পরীক্ষার কেন্দ্র থেকে বের করে দেয়ার ঘটনাও ঘটে। 

তবে ওই অভিযোগ অস্বীকার করে স্কুলের প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব আজিম উদ্দিন বলেন, পরীক্ষার্থীরা আমার কাছে বা শিক্ষকদের কাছে না গিয়ে বাইরের একটি কুচক্রী মহলের ইন্ধনে কক্ষ থেকে বের হয়ে বিক্ষোভ মিছিল করে এবং শ্রেণিকক্ষের কাচের জানালা ভাংচুর করে।


শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।