অবশেষে শাহজালাল বিমানবন্দরে চালু হলো দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম ‘ই-গেট’

অবশেষে শাহজালাল বিমানবন্দরে চালু হলো দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম ‘ই-গেট’
South Asia's first e-gate launched at Shahjalal Airport



 : First Time on South Asia - দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে বিমানবন্দরে ‘ই-গেট’ চালু করলো বাংলাদেশ সরকার। ২০২১ সালের ৩০ জুন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ই-গেট উদ্বোধনের ১১ মাস পর গত ৭ জুন থেকে “ই-গেট” চালু করলো বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ। ফলে মাত্র ১৮ সেকেন্ডেই ইমিগ্রেশন পার হতে পাচ্ছেন যাত্রীরা।


বাংলাদেশ ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদপ্তর জানায়, ই-পাসপোর্ট নিয়ে যখন একজন ব্যক্তি ই-গেটের কাছে যাবেন, তখন একটি নির্দিষ্ট স্থানে ই-পাসপোর্টটি রাখলে সঙ্গে সঙ্গে গেট খুলে যাবে। তখন নির্দিষ্ট নিয়মে গেটের নিচে দাঁড়ানোর পর ক্যামেরা ওই ব্যক্তির ছবি তুলে নেবে। এরপর সব ঠিকঠাক থাকলে কয়েক সেকেন্ডের মধ্যেই ইমিগ্রেশন পার হয়ে যেতে পারবেন যাত্রী।


তবে যদি কোনো যাত্রী ভুল করেন, তাহলে লাল বাতি জ্বলে উঠবে। তখন সেখানে দায়িত্বরত কর্মকর্তারা সঠিকভাবে ই-পাসপোর্ট ব্যবহারে ওই যাত্রীকে সহযোগিতা করবেন।


ই-পাসপোর্টের মাধ্যমে ১৮ সেকেন্ডে একজন যাত্রী নিজেই নিজের ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করতে পারবেন। এ বিষয়ে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরের নির্বাহী পরিচালক গ্রুপ ক্যাপ্টেন কামরুল ইসলাম বলেন , হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে মোট ১৫টি ই-গেট বসানো হয়েছে। তারমধ্যে বিমানবন্দরের ডিপার্চার (বহির্গমন) এলাকায় ১২টি এবং অ্যারাইভাল (আগমনী) এলাকায় তিনটি ই-গেট বসানো হয়েছে। গত রোববার ও সোমবার পরীক্ষামূলকভাবে এ গেট ব্যবহার করা হয়েছিল। এতে দেখা গেছে, মাত্র ১৮ সেকেন্ডেই একজন যাত্রী নিজেই নিজের ইমিগ্রেশন সম্পন্ন করতে পারছেন।


এ ছাড়া শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ছয়টি ও ওসমানী আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে ছয়টি ই-গেট স্থাপন করা হয়েছে।


শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।