রৌমারীতে জনগণেরসেবা নিশ্চিত করতে উদ্যোক্তা পরিবর্তন

 : তথ্যসেবা বঞ্চিত ও হয়রানির শিকার নিরসনে কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার যাদুরচর ইউনিয়ন পরিষদের ডিজিটাল সেন্টারের তথ্য উদ্যোক্তা সফিকুল ইসলাম ও তার স্ত্রী শাহনাজ পারভীনকে বাতিল করে নতুন তথ্য উদ্যোক্তার সাথে চুক্তি সম্পাদন করা হয়েছে। 

রৌমারীতে জনগণেরসেবা নিশ্চিত করতে উদ্যোক্তা পরিবর্তন



 এ বিষয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার, জেলা প্রশাসকসহ স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় একটি সুপারিশমালা পাঠিয়েছেন ইউপি চেয়ারম্যান সরবেশ আলী। 


জানা গেছে ২০০১ সালে ডিজিটাল সেন্টারে তথ্য উদ্যোক্তা হিসেবে সফিকুল ও তার স্ত্রী শাহনাজ পারভীনের সাথে ৫ বছরের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর হয়। চুক্তির পর থেকেই উদ্যোক্তা শাহনাজ একেবারেই অনুপস্থিত ও চুক্তি অনুযায়ী উদ্যোক্তা সফিকুল উদ্ধর্তন কর্তৃপক্ষের নির্দেশ অমান্য, সরকারি কাজে গড়িমসি, ইউনিয়ন পরিষদের কাজ না করা, তার ইচ্ছামত পরিষদে আসা যাওয়া ও জনগণের সাথে অসদাচরণ করায় তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। পরে ইউপি চেয়ারম্যানের সভাপতিত্বে ও সদস্যদের নিয়ে সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় ইউপি সদস্যদের নিয়ে সবার মোতামতের ভিত্তিতে সকলের স্বাক্ষরিত রেজুলেশনের মাধ্যমে পূর্বের দুইজনকে বাতিল করে নতুন উদ্যোক্তা মাইদুল ইসলাম ও নাছরিন খাতুনকে নিয়োগ দিয়ে আগামী ৫ বছরের জন্য চুক্তি স্বাক্ষর করা হয়েছে। 

এ বিষয়ে যাদুর চর ইউপি চেয়ারম্যান সরবেশ আলী জানান, পূর্বের উদ্যোক্তা ২ জন সঠিক সময়ে পরিষদের না আসায় এলাকাবাসি বিভিন্ন ভাবে হয়রানি হয়েছে। তাদেরকে একাধীকবার বলার পরেও তথ্যসেবার কোন কাজ করেনি। ফলে হয়রানি থেকে রেহাই করতে সফিকুল ও তার স্ত্রীকে বাতিল করা হয়েছে এবং নতুন ২ জনের সাথে চুক্তি করা হয়েছে। এব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও জেলা প্রশাসক বরাবর চিঠি দেওয়া হয়েছে। 


উপজেলা নির্বাহী অফিসার আশরাফুল আলম রাসেল (ভার:) জানান, যাদুর চর ইউনিয়ন পরিষদের তথ্য উদ্যোক্তার বিষয়ে উভয় পক্ষের কাগজপত্র পেয়েছি। জনগণ হয়রানির শিকার হউক এটা করা যাবে না। তবে বিষয়টি দেখা হচ্ছে।



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।