SebaBanner

হোম
বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের স্থগিত কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের দাবি

আ’লীগের প্রার্থী হেরে গিয়ে নির্বাচন বাতিলের পায়তারা করছেন
বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনের দ্রুত গেজেট প্রকাশ ও স্থগিত কেন্দ্রে ভোট গ্রহণের দাবি
voting in the postponed center of Bakshiganj municipality elections

সেবা ডেস্ক:  জামালপুরের বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে স্থগিত হওয়া একটি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ ও নির্বাচিত কাউন্সিলরদের গেজেট প্রকাশের দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করা হয়েছে।

বুধবার দুপুর ১২ টায় বকশীগঞ্জ বাসস্ট্যান্ড মোড় এলাকায় সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করে এ দাবি জানান ৮ টি ওয়ার্ডের নির্বাচিত কাউন্সিলর , সংরক্ষিত কাউন্সিলর এবং ভোটে এগিয়ে থাকা স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম সওদাগর।

লিখিত বক্তব্যে নজরুল ইসলাম সওদাগর বলেন, গত ২৮ ডিসেম্বর-১৭ ইং তারিখে বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে ১২ টি কেন্দ্রের মধ্যে মালিরচর সরকারি প্রাথমিক কেন্দ্রে গোলযোগের কারণে ওই কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ স্থগিত করা হয়।

বাকি কেন্দ্র গুলোতে সুন্দর ও সুষ্ঠুভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট গ্রহণ শেষে নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ১২ টি কেন্দ্রের মধ্যে ১১ টি কেন্দ্রের ফলাফল আনুষ্ঠানিক ভাবে ঘোষণা করেন।
কিন্তু নির্বাচনে হেরে তৃতীয় স্থান অধিকারী আওয়ামী লীগের মনোনীত প্রার্থী শাহীনা বেগম বিভিন্ন অভিযোগ তুলে নির্বাচন কমিশন সহ বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেন।

আওয়ামী লীগ প্রার্থী শাহীনা বেগম মিথ্যা অভিযোগ দাখিল ও তদবির করে নির্বাচনকে বিলম্বিত করার পায়তারা করছেন। নির্বাচনের দুই মাস পরও স্থগিত কেন্দ্রে ভোট না হওয়া ও বিজয়ী কাউন্সিলর প্রার্থীদের গেজেট প্রকাশ না করায় তারা সংবাদ সম্মেলন করেন।

তারা অবিলম্বে স্থগিত কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ ও নির্বাচিতদের গেজেট প্রকাশ করতে নির্বাচন কমিশনের হস্তক্ষেপ কামনা করেন।


উক্ত সংবাদ সম্মেলনে এসময় বিজয়ী কাউন্সিলর কামরুজ্জামান সুজন, শাহিনুর রহমান,মিজানুর রহমান, আক্তার হোসেন, হাসিবুর রহমান বাবুল, হারুনুর রশিদ ও মো. আব্দুল্লাহ ও বেবি বেগম সহ জামালপুর ও বকশীগঞ্জ উপজেলার সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য গত ২৮ ডিসেম্বর বকশীগঞ্জ পৌরসভা নির্বাচনে একটি কেন্দ্র ছাড়া ১১ টি কেন্দ্রের ফলাফলে স্বতন্ত্র মেয়র প্রার্থী নজরুল ইসলাম সওদাগর আট হাজার ৫৯৯ ভোট পেয়ে এগিয়ে রয়েছেন।

,

Home-About Us-Contact Us-Sitemap-Privacy Policy-Google Search