ব্যাকফুটে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)!

ব্যাকফুটে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল (বিএনপি)!
সেবা ডেস্ক: ঢাকা শহর জুড়ে যত ব্যানার ও পোষ্টার চোখে পড়ে তার মধ্যে দুজনের ছবিই বেশি দেখা যায়। একটি হলো বাঙালি জাতির জনক ও স্বাধীনতার স্থপতি ও কারিগর শেখ মুজিবুর রহমান ও অন্যজন হলেন তারই যোগ্য উত্তরসূরি বাংলাদেশের বর্তমান ও তিন বারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জাতীয় সংসদের প্রধান বিরোধী দল জাতীয় পার্টির কিছু পোস্টার চোখে পড়লেও মাঠে সরকারের প্রধান প্রতিপক্ষ বিএনপির পোস্টার কালেভদ্রে দেখা পাওয়াই ভার।

বাংলাদেশের পেক্ষাপটে একটি রাজনৈতিক দলের পোস্টার ও দেয়াল চিত্র বা গ্রাফিতি তাদের কর্মকাণ্ডের জানান দেয়। কিন্তু বিরোধীদল বিএনপির তাতে কোনো অংশগ্রহণ নেই। বর্তমানে রাজপথেও নেই সরব উপস্থিতি। দলের চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার কারাদণ্ড প্রাপ্তির পর আদালত পাড়ায় দৌড়ঝাঁপ আর রাস্তায় কিছুদিন মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচির পর বর্তমানে তাতেও যেন কোনো আগ্রহ নেই। বেঁচে আছে শুধু কিছুদিন পরপর প্রেসক্লাব কেন্দ্রিক কোনো সংগঠনের ব্যানারে ঘরোয়া মিটিং ও সাংবাদিক সম্মেলন করে নিজেদের মতামত পেশ করার মতো কর্মসূচি।

মূলত: ২০১৪ সালের নির্বাচন বয়কটের পথ ধরেই বিএনপির ব্যাকফুটে চলে যাওয়ার রাস্তা তৈরি হয় বলেই মনে করেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা। জাতীয় সংসদে নিজেদের কোনো প্রতিনিধিত্ব না থাকায় সংসদীয় রাজনীতি চর্চার বাইরে চলে যায় বিএনপি। অপেক্ষাকৃত দুর্বল হলেও সে স্থান দখল করে এরশাদের নেতৃত্বাধীন জাতীয় পার্টি ও বাম ঘরানার ছোট দলগুলো। বিভিন্ন ইস্যুতে তাদের উপস্থিতি মিডিয়ার উপাদান হওয়ায় বিএনপিকে মিডিয়ায় কিছুটা হলেও কোণঠাসা করতে সমর্থ হয়।

২০১৫ সালে নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় আলোচনায় থাকলেও বস্তুত তা বিএনপিকে জাতীয় ও আন্তর্জাতিকভাবে আরো কোণঠাসা করে ফেলে। ফলে চাপে থাকা বিএনপির পক্ষে রাজপথে কোনো দাবি-দাওয়া নিয়ে অটল থাকাও সম্ভব হয়নি।

মাঝে মাঝে স্থানীয় নির্বাচন নিয়ে মিডিয়ায় আলোচনায় থাকলেও রাজপথ থেকে নিজেদের দূরেই রাখতে হয়।

সর্বশেষ দলীয় চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার দুর্নীতি মামলায় সাজা প্রাপ্তিকে কেন্দ্র করে কিছুটা সরগরম হলেও তা ছিল খুবই সীমিত এবং স্বল্প সময়ের জন্য। একটি রাজনৈতিক দলের কোনো কেন্দ্রীয় নেতার মুক্তির জন্যও যেমন প্রতিবাদী পোস্টার বা দেয়ালচিত্র এ জাতি অতীতে দেখেছে তার ছিটেফোটাও বিএনপির মতো দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকা দলের প্রধানের ক্ষেত্রে দেখেনি তারা।

বিশ্লেষকরা বলছেন, রাজনৈতিক কর্মকান্ডের সংজ্ঞায় বিএনপি এখন ব্যাকফুটে চলে যাওয়ার মতো অবস্থায় রয়েছে। সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু নেতা ও সাধারণ কর্মীদের বিচ্ছিন্ন রাজনৈতিক স্ট্যাটাস দেয়া ছাড়া দলীয় বা সাংগঠনিকভাবে তারা অস্পষ্ট ছায়ার আকার ধারণ করে আছে বলেই মনে হয়। যা একসময় নিজেদের রাজনৈতিক অস্তিত্বহীনতা ও দেউলিয়াত্বের দিকে নিয়ে যেতে পারে বলে মনে করছেন তারা।



,