SebaBanner

আজ*

হোম
মার্কিন দূতাবাসকে গঠনমূলক আলোচনার প্রস্তাব সজীব ওয়াজেদ জয়ের

মার্কিন দূতাবাসকে গঠনমূলক আলোচনার প্রস্তাব সজীব ওয়াজেদ জয়ের

প্রতিটি সিটি করপোরেশন নির্বাচনে হারের পর বিএনপি যেসব অভিযোগ করে থাকে সেই একই অভিযোগের পুনরাবৃত্তি করায় মার্কিন দূতাবাসের প্রতি গঠনমূলক আলোচনার প্রস্তাব জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়। সম্প্রতি মার্কিন দূতাবাসের রাষ্ট্রদূত গাজীপুর সিটি নির্বাচন প্রসঙ্গে বিএনপির পক্ষ নিয়ে নির্বাচনে অনিয়মের কথা বলেছেন। বিএনপির পক্ষের অভিযোগগুলো নিয়ে কথা বললেও গাজীপুর নির্বাচনে তিনি বিএনপির সহিংসতা চালানোর পরিকল্পনা নিয়ে কোনো কথা বলেননি। অথচ তা গণমাধ্যমে ফলাওভাবে প্রকাশ পেয়েছে। ফলে মার্কিন দূতাবাস বিএনপির মূখপাত্রে পরিণত হয়েছে বলেও জয় উল্লেখ করেছেন।

প্রধানমন্ত্রীর তথ্য ও প্রযুক্তিবিষয়ক উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় ২ জুলাই রাতে তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে একটি পোস্ট দেন। সেখানে তিনি লেখেন, ‘বাংলাদেশে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাস অনেকটা বিএনপি`র মুখপাত্রে পরিণত হয়েছে। সম্প্রতি গাজীপুরে অনুষ্ঠিত সিটি করপোরেশন নির্বাচন নিয়ে বিএনপি`র মন্তব্যগুলোই তারা পুনরাবৃত্তি করছে এবং অনিয়মের কথা বলছে অথচ নির্বাচনে বিএনপি`র সহিংসতা চালানোর চেষ্টা নিয়ে কিছুই বলছে না।’
সজীব ওয়াজেদ জয় তার পোস্টে আরও লেখেন, ‘নির্বাচনে ৪২৫টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে মাত্র ৯টি অর্থাৎ ২.১ শতাংশ কেন্দ্রে অনিয়ম হয়েছিল। এক্ষেত্রে নির্বাচন কমিশন তার দায়িত্ব পালন করার মাধ্যমে কেন্দ্রগুলোর ভোটগ্রহণ বাতিল ঘোষণা করে। আমাদের নতুন মেয়র জাহাঙ্গীর আলম বিএনপির প্রার্থী হাসান থেকে ২ লক্ষের বেশি ভোট, অর্থাৎ দ্বিগুন ভোট পেয়ে বিজয়ী হয়েছেন। সকল নির্বাচনী পর্যবেক্ষকরা একমত যে, অনিয়মের অভিযোগ যা এসেছে তা কোনোভাবেই নির্বাচনের ফলে প্রভাব ফেলতে পারেনি।’
তার স্ট্যাটাসের শেষ অংশে তিনি লিখেছেন, ‘বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্য মিজানুর রহমানের ফোনালাপ থেকে আমরা জানতে পারি যে তার দল সহিংসতা তৈরি করার মাধ্যমে নির্বাচনটিকে প্রশ্নবিদ্ধ করার ষড়যন্ত্র করেছিল। যুক্তরাষ্ট্র দূতাবাস তাদের বক্তব্যে এই বিষয়টিকে কিন্তু এড়িয়ে গেছে। যুক্তরাষ্ট্রের বর্তমান সরকারের নীতি হচ্ছে অন্য কোনো দেশের অভ্যন্তরীণ বিষয়ে নাক না গলানো। তাই বক্তব্যটি বাংলাদেশে অবস্থিত মার্কিন দূতাবাসেরই বলে ধরে নেয়া যায়। বুঝাই যা যাচ্ছে দূতাবাসের কর্মকর্তাবৃন্দ তাদের বিএনপির বন্ধুদের সাথে খুব বেশি সময় কাটাচ্ছেন আজকাল।’
প্রসঙ্গত, গত ২৮ জুন বিএনপি পক্ষ নিয়ে গাজীপুর সিটি করপোরেশনকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে নির্বাচন সুষ্ঠু হয়নি বলে বক্তব্য দেন বাংলাদেশে নিযুক্ত যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত মার্শা স্টিফেনস ব্লুম বার্নিকাট। যা বিএনপির অভিযোগের সাথে পুরো মিলে যায়। যদিও গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে বিএনপি এবং বার্নিকাটের অভিযোগের সাথে গাজীপুর সিটি নির্বাচন নিয়ে গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদের তথ্যে সঙ্গে মিল পাওয়া যায়নি।

,