জামায়াত নেতা জুনাইদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্টমন্ত্রী বরাবর আবেদন

জামায়াত নেতা জুনাইদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্টমন্ত্রী বরাবর আবেদন

ওয়াসিম হায়দার, লোহাগাড়া প্রতিনিধি:লোহাগাড়ার জামায়াত নেতা জুনাইদ চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্টমন্ত্রী বরাবর আবেদন, এমপির হস্তক্ষেপ কামনা

চট্টগ্রামের লোহাগাড়া উপজেলার ১২ দিন মজুরের বিরুদ্ধে মিথ্যে মামলা প্রত্যাহার এবং জড়িত উপজেলার বড়হাতিয়া ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ জুনাইদসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও এলজিআরডি সচিব বরাবর লিখিত আবেদন করেছে ভুক্তভোগীরা।
take action against the chairman of the Jamaat leader Junaid
রবিবার এ আবেদন করে তারা। একই সঙ্গে এ ঘটনায় স্থানীয় সংসদ সদস্যের মাধ্যমে তদন্তপূর্বক জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা এবংমিথ্যে মামলা প্রত্যাহার চেয়েছে তারা।
take action against the chairman of the Jamaat leader Junaid
আবেদনে দিনমজুররা উল্লেখ করেন, গত বছর ১০ আগস্ট লোহাগাড়া উপজেলা আধুনগর বাজারে কাজ করার সন্ধানে আসে তারা। সেখান থেকে আধুনগর ইউনিয়নের র্সদানি পাড়ার হারুন নামে একব্যাক্তির জমিতে চাষবাদে কৃষি কাজের দৈনিক মজুরী ধার্য্য করে তাদের বাড়িতে নিয়ে আসে মিজান নামে তাদের এক গৃহকর্মী। তখন লোহাগাড়া থানার ওসি শাহাজাহানের সাথে হারুনের পরিবারে সঙ্গে পূর্ব শত্রুতার জের থাকায় পরিকল্পিতভাবে রাত ১০টায় হারুনের বাড়ীতে পুলিশ ঘেরাও করে। এসময় দিনমজুররা কোনমতে পালিয়ে পার্শ্ববর্তী বড়হাতিয়া মগদিঘী পাড়ে গেলে সেখানকার চেয়ারম্যান জুনাইদ, আলম মেম্বারসহ স্থানীরা তাদের আটক করে ইউনিয়ন কার্যলয়ে নিয়ে গিয়ে বেধড়ক মারধর করে এবং এ ঘটনায় পুলিশ ও চেয়ারম্যান অস্ত্র উদ্ধারের নাটক সাজায়। পরদিন অস্ত্র মামলায় কোর্টে চালান দেয় লোহাগাড়া থানা পুলিশ।

পরে এ ঘটনার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সমালোচনার ঝড় উঠে। এসময় স্থানীয় সাংবাদিকেরা ‌‌‌'১২ দিনমজুরকে ডাকাত সাজিয়ে জেল হাজতে প্রেরণ' শিরোনামে সংবাদও প্রচার করে।
take action against the chairman of the Jamaat leader Junaid
জানা যায়, মিথ্যে এ মামলায় ৮-১০ মাস জেলখাটে এসব অসহায় দিনমজুর। ফলে তারা নিঃস্ব হয়ে গেছে। তাই এ মিথ্যা মামলা ও হয়রানী থেকে মুক্তি পেতে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ও এলজিআরডি সচিব বরাবর লিখিত আবেদন করেছে ভুক্তভোগীরা।

এ ব্যাপারে লোহাগাড়া উপজেলার আধুনগরের বাসিন্দা মোঃ হারুন জানান, আমার পরিবারের সাথে লোহাগাড়া থানার সাবেক ওসি মোঃ শাহজাহানের মামলা নিয়ে বিরোধ ও শত্রুতা থাকায় পরিকল্পিতভাবে এটা করা হয়েছে। এ ঘটনায় সাবেক ওসি মোঃ শাহজাহান, বড়হাতিয়া চেয়ারম্যান জোনাইদ ও মেম্বার আবদুল আলীম জড়িত। আমি জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবী করেছি এবং অসহায় দিন মজুরদের মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারে সংশ্লিষ্ট সকলের সহযোগীতা কামনা করছি।
⇘সংবাদদাতা: ওয়াসিম হায়দার

, , ,

0 comments

Comments Please

themeforestthemeforest

ছবি কথা বলে