বেগম জিয়াকে মুক্তি দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার

বেগম জিয়াকে মুক্তি দিচ্ছে বাংলাদেশ সরকার
সেবা ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে বাংলাদেশ সরকার। আজ মঙ্গলবার বেলা সাড়ে তিনটার দিকে গুলশানের বাসভবনে সংবাদ সম্মেলনে এ সিদ্ধান্তের কথা জানান আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

আরও দেখুন: দেখুন একজন থেকে অন্যজনের মাঝে কিভাবে ছড়াচ্ছে করোনা ভাইরাস

আইনমন্ত্রী বলেন, বিএনপির কারাবন্দী চেয়ারপার্সন খালেদা জিয়াকে শর্তসাপেক্ষে ছয় মাসের জন্য মুক্তি দেয়ার সুপারিশ করেছে সরকার। এ সংক্রান্ত সুপারিশ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হয়েছে।

তিনি ঢাকায় নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করবেন। বিদেশ না যাওয়ার শর্তে ৬ মাসের জন্য তাকে এ জামিন দেয়া হচ্ছে। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রণালয় যেদিন থেকে তার আবেদন গ্রহণ করবে, সেদিন তিনি মুক্তি পাবেন।

আরও দেখুন: করোনা থেকে বাঁচতে স্পেনের ঘরে ঘরে ধ্বনিত হলো আযান

আনিসুল হক আরো বলেন, তার সাজা ছয় মাসের জন্য স্থগিত রেখে তাকে ঢাকাস্থ নিজ বাসায় থেকে চিকিৎসা গ্রহণ করার শর্তে এবং ওই সময়ে তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবেন না এই শর্তে তাকে মুক্তি দেয়ার জন্য আমি মতামত দিয়েছি। সেই মতামত এখন স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পৌঁছে গেছে।

তার মুক্তির মেয়াদ বাড়ানো হবে কিনা এ বিষয়ে তিনি বলেন, আগে ৬ মাস যাক, তারপর দেখা যাবে।

আইনমন্ত্রী বলেন, তিনি অন্য হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে পারবেন না এরকম কিছু বলা হয়নি। সেটা তার অবস্থার ওপর নির্ভর করবে। তবে শর্ত হচ্ছে তিনি দেশের বাইরে যেতে পারবে না। মানবিক কারণে সরকার সদয় হয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১ ধারা, ও উপধারা -১ অনুযায়ী এটা আইনি প্রক্রিয়া করা হয়েছে।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতির মামলায় ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাগারে রয়েছেন বেগম খালেদা জিয়া। বর্তমানে তিনি বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ের (বিএসএমএমইউ) প্রিজন সেলে চিকিৎসাধীন।

আরও দেখুন:
করোনা ভাইরাস সম্পর্কে বকশীগঞ্জ ঐতিহ্যবাহি খান বাড়ি মসজিদের ঈমাম মুফতি মওলানা মুহিব হাসানের বক্তব্য



 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন


, ,