রৌমারীতে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে ঘুষ গ্রহনের অভিযোগ

রৌমারীতে বিদ্যুৎ সংযোগের নামে ঘুষ গ্রহনের অভিযোগ


শফিকুল ইসলাম: বিদ্যুৎ সংযোগের নামে ৬৫ জন গ্রহকের কাছ থেকে প্রায় সাড়ে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়েছে একটি প্রত্যারক চক্র। এ বিষয়ে বিভিন্ন দপ্তরে অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগীরা।

অভিযোগ সুত্রে জানা গেছে, কুড়িগ্রামের রৌমারী উপজেলার বাগুয়ার চর গ্রামের কাজিম উদ্দিনের ছেলে আবু বক্কর সিদ্দিক মাস্টার, কাশেম আলীর ছেলে আনিসুর রহমান ওরফে ফজর, রমজান সরকারের ছেলে আব্দুল মজিদসহ কয়েকজনের একটি প্রতারক চক্র এক মাসের মধ্যে পল্লি বিদ্যুৎ সংযোগ দেওয়ার কথা বলে অফিসের খরচ বাবদ গ্রামের গরীব দুঃখিদের কাছ থেকে জন প্রতি ৫ থেকে ৭ হাজার টাকা পর্যন্ত হাতিয়ে নেয়। 

এদিকে এক বছর অতিবাহিত হলেও ওই গ্রামে মিলেনি পল্লী বিদ্যুতের আলো। 

এ নিয়ে বিদ্যুৎ গ্রাহক ও দালালদের সাথে বিদ্যুৎ সংযোগ নিয়ে একাধীকবার শালিসি বৈঠক বসলেও কোন সমাধান হয়নি। একই ভাবে বিদ্যুৎ অফিসের অসাদু কর্মকর্তা কর্মচারির যোগসাজসে উপজেলার বিভিন্ন গ্রামে বিদ্যুতের খুটি, তার, বোর্ড ও মিটার দেওয়ার নামে পর্যায়ক্রমে লক্ষ লক্ষ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে দালাল চক্রটি। 

কোন কোন এলাকায় ৩ বছরেও মিলেনি বিদ্যুৎ সংযোগ। বাগুয়ারচর গ্রামের প্রতারনার শিকার ৬৫ জন গ্রাহক পলীø বিদ্যুতের দায়িত্বরত জেনারেল ম্যানেজারসহ বিভিন্ন দপ্তরে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন। 

অভিযোগকারি শফিকুল ইসলাম জানান, গ্রামের কয়েকজন দালাল পলীø বিদ্যুতের সংযোগ দেওয়ার কথা বলে বিদ্যুৎ অফিসের খরচ বাবদ সাড়ে ৩ লাখ টাকা হাতিয়ে নেয়। এখন বিদ্যুৎ সংযোগ তো দুরের কথা টাকাও ফেরত দিচ্ছে না তারা।

এব্যাপারে জামালপুর পল্লী বিদ্যুৎ রৌমারী জোনাল ম্যানেজার (ডিজিএম) শামিম খাঁন বলেন, অভিযোগ পেয়েছি এবং তদন্তের জন্য দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে। তদন্ত প্রতিবেদনে সত্যতা পেলে প্রতারক চক্রে বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।
 



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।