সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সমাবেশ

সাংবাদিক নির্যাতনের প্রতিবাদে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সমাবেশ


সেবা ডেস্ক: ব্রাক্ষণবাড়িয়া প্রেসক্লাব ও সাংবাদিকদের ওপর হামলার প্রতিবাদে সমাবেশ করেছে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন(ডিইউজে)। 

আজ বৃহস্পতিবার দুপুরে “রুখে দাঁড়াও সাম্প্রদায়িক অপতৎপরতা” শ্লোগান নিয়ে  জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গনে এই প্রতিবাদ সমাবেশ  অনুষ্ঠিত হয়। 

জাতীয় প্রেসক্লাব প্রাঙ্গনে অনুষ্ঠিত ঘন্টাব্যাপী এ প্রতিবাদ সমাবেশে ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) এর নেতাকর্মী ও বক্তারা ব্রাক্ষণবাড়িয়ায় সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারীসহ অন্যান্য সাংবাদিক হত্যা ও হামলাকারীদের   দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান।  

তারা আরও বলেন, হেফাজতের হরতালের সময় প্রেসক্লাব সভাপতি ও চ্যানেল-২৪ এর স্টার্ফ রিপোর্টার রিয়াজউদ্দিন জামিসহ অন্যন্য সাংবাদিকদের ওপর হামলা এবং প্রেসক্লাবে ভাঙচুর করা হয়। এ হামলা ও ভাঙচুর পরিকল্পিত। 

এ ঘটনার দোষীদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির দাবি জানানো হয়। 

 প্রায়ই হামলা-মামলা ও নির্যাতনের শিকার হচ্ছেন সাংবাদিকরা। এর কোনো সুষ্ঠু তদন্ত কিংবা বিচার না হওয়ায় নির্যাতনের মাত্রা দিন দিন বেড়েই চলছে।

অনতিবিলম্বে সাংবাদিকদের ওপর হামলাকারীদের চিহ্নিত করে দ্রুত শাস্তির আওতায় আনার দাবি জানান বক্তারা। 

উল্লেখ্য, গত শুক্রবার ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর সফরের প্রতিবাদে শুক্রবার দুপুরে চট্টগ্রামের হাটহাজারীর বড় মাদ্রাসা হিসেবে পরিচিত দারুল উলুম মুঈনুল ইসলাম থেকে কয়েক হাজার হেফাজত কর্মী লাঠিসোটা নিয়ে থানা ও বিভিন্ন সরকারি স্থাপনায় হামলা চালায়। এই সময় আইনশৃঙ্খালা বাহিনীর সঙ্গে সংঘর্ষে চারজন নিহত হন।

ওইদিন বিকালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে তাণ্ডব শুরু করে একদল মাদ্রাসাছাত্র। তারা রেলওয়ে স্টেশনসহ বিভিন্ন স্থানে অগ্নিসংযোগ করে, ভাংচুর চালায়। শনিবারও তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া শহরে তাণ্ডব চালায়, যেখানে অন্তত পাঁচজনের প্রাণহানি হয়।     

পরদিন রোববার তারা ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রেসক্লাব, সাংবাদিক ও বিভিন্ন সরকারিসহ স্থাপনায় হামলা, ভাংচুর, অগ্নিসংযোগসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর ওপর হামলা করে। এদিন আরও দুজন নিহত হন।

সাংবাদিকনেতা বিজন বলেন, গত ২৬ মার্চ থেকে ২৮ মার্চ পর্যন্ত মাদরাসা ছাত্র ও হেফাজত ইসলামের হামলায় প্রেসক্লাবের সভাপতি ও চ্যানেল টোয়েন্টিফোরের স্টাফ রিপোর্টার রিয়াজ উদ্দিন জামি, আমাদের নতুন সময় ও আমাদের সময় ডটকমের ব্রাহ্মণবাড়িয়া প্রতিনিধি আবুল হাসনাত মো. রাফি, ডেইলি স্টারের স্টাফ রিপোর্টার মাসুক হৃদয়, একুশে টিভির প্রতিনিধি মীর মোহাম্মদ শাহীন, এটিএন নিউজের ক্যামেরা পারসন সুমন রায়, লাখোকণ্ঠের প্রতিনিধি বাহাদুর আলম, ডেইলি ট্রাইব্যুনালের প্রতিনিধি ইফতেহার রিফাত, এনটিভির ক্যামেরা পারসন সাইফুল ইসলাম আহত হন।

“এছাড়া প্রেসক্লাবে হামলা করে ব্যাপক ভাংচুর করা হয়। তাদের তাণ্ডবে প্রেসক্লাবে অবস্থান করা জেলার অর্ধশত সাংবাদিক অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন। একাত্তর টিভির প্রতিনিধি জালাল উদ্দিন রুমি ও আজকালের খবর প্রতিনিধি মোজাম্মেল চৌধুরী কাজ করতে গিয়ে লাঞ্ছিত হন।”



শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।

Dara Computer Laptops