বকশীগঞ্জে ধর্ষণের শিকার তরুনীর সন্তান প্রসব, ধর্ষক গ্রেপ্তার

বকশীগঞ্জে ধর্ষণের শিকার তরুনীর সন্তান প্রসব, ধর্ষক গ্রেপ্তার



নূরুজ্জামান খান: জামালপুরের বকশীগঞ্জে ধর্ষণের শিকার হওয়া এক তরুনী কন্যা সন্তান প্রসব করেছেন।

মঙ্গলবার বিকালে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের টয়লেট কক্ষে সন্তান প্রসব করেন ওই তরুনী (১৮)।

এঘটনায় বকশীগঞ্জ থানা পুলিশ রাত সাড়ে ১০ টার দিকে মেরুরচর এলাকা থেকে ধর্ষণের অভিযুক্ত দেলোয়ার হোসেন দুলু (৫০) কে আটক করেন থানা পুলিশ। 

দুলু সাধুরপাড়া ইউনিয়ন কৃষক লীগের সভাপতি ও আচ্চাকান্দি গ্রামের জহরুল হকের ছেলে।

জানা গেছে, সাধুরপাড়া ইউনিয়নের ডেরুরবিল গ্রামের বাসিন্দা এতিম ওই তরুনীর বাড়ি ও দুলুর বাড়ি পাশাপাশি এবং তারা নিকটআত্মীয় হওয়ায় দুুলু মাঝে মধ্যে ওই তরুনীর বাড়িতে যাতায়াত করতো। এই সুযোগে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ওই তরুনীকে ধর্ষণ করেন দুলু।

আরও পড়ুন: 
  1. বকশীগঞ্জে চতুর্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলেন যারা!
  2. জামালপুর জেলায় ৪র্থ ধাপের ইউপি নির্বাচনে নৌকার মনোনয়ন পেলেন যারা!
  3. ২৩ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত হচ্ছে না ৪র্থ ধাপের ভোট গ্রহন
  4. বকশীগঞ্জে চেয়ারম্যান প্রার্থী জুয়েল তালুকদারের মনোনয়ন ফরম সংগ্রহ 
  5. বকশীগঞ্জে নকলের দায়ে ২ শিক্ষার্থীকে বহিস্কার ও ২ শিক্ষককে অব্যাহতি  

এক পর্যায়ে ওই তরুনী অন্তসত্ত¡া হয়ে পড়েন। বিষয়টি নিয়ে দুলু একাধিকবার হাসপাতালে নিয়ে গর্ভপাত করানোর কথা বললে লোকলজ্জার ভয়ে বাড়ি থেকে বের হননি ওই তরুনী।

মঙ্গলবার অসুস্থ হয়ে পড়লে তাকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নেওয়া হয় এবং সেখানেই কন্যা সন্তান প্রসব করে ধর্ষণের শিকার ওই তরুনী। 

কন্যা সন্তান জন্ম দেওয়ার ঘটনা প্রকাশ হলে থানা পুলিশের দ্বারস্থ হন ভিকটিম পরিবার। 

এঘটনায় বকশীগঞ্জ থানায় ওই রাতেই ভিকটিমের মা বাদী হয়ে দুলুকে আসামি করে নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনের ধর্ষণ মামলা দায়ের করলে থানা পুলিশ অভিযান চালিয়ে মেরুরচর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেন। 

বকশীগঞ্জ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম সম্রাট জানান, গ্রেপ্তারকৃত দেলোয়ার হোসেন দুলুকে বুধবার জামালপুর বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। 

 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।