নন্দীগ্রামে উত্তেজনার মধ্যেই বিএনপি-জাপার পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন

নন্দীগ্রামে উত্তেজনার মধ্যেই বিএনপি-জাপার পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন



 : বগুড়ার নন্দীগ্রামে চরম উত্তেজনার মধ্যেই বিএনপি ও জাতীয় পার্টি পাল্টাপাল্টি কর্মসূচি পালন করেছে। একইস্থানে দুই দলের কর্মসূচি আহবান করাকে কেন্দ্র করে নেতাকর্মীদের মধ্যে ক্ষোভ ও উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। তবে এ ঘটনাকে কেন্দ্র করে অপ্রীতিকর ঘটনার খবর পাওয়া যায়নি। ঘোষিত পৃথক কর্মসূচি দুই দলের কেউই সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে করতে পারেনি। বিদ্যালয় মাঠ ফাঁকা পড়ে ছিল। 

রোববার (২৪ এপ্রিল) বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে উপজেলা-পৌর বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। অন্যদিকে দলের কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় ও উপজেলা প্রশাসনের পরামর্শে পৌর সদরের বাসস্ট্যান্ডে ইফতার ও দোয়ার আয়োজন করে উপজেলা জাতীয় পার্টি। 

জানা গেছে, বিএনপি ও জাতীয় পার্টি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে একইস্থানে কর্মসূচি আহবান করে। এনিয়ে দুই দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে টানটান উত্তেজনা বিরাজ করে। এঘটনায় গত শনিবার রাতে জাতীয় পার্টির নেতাকর্মীরা পৌর শহরে মোটরসাইকেল মহড়া দেয়। রোববার সকাল থেকে বিএনপির নেতাকর্মীরা বিদ্যালয়ের ভিতরে অবস্থান নেয়। এ ঘটনা কেন্দ্র করে দুই দলের নেতাকর্মীদের মধ্যে ফের উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। তবে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে কঠোর অবস্থানে ছিল থানা পুলিশ। 

বিএনপির সুত্র জানায়, বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও ইফতার মাহফিলের পূর্বঘোষিত কর্মসূচি ছিল মনসুর হোসেন ডিগ্রি কলেজ মাঠে। আমন্ত্রণ পত্রেও কলেজ মাঠ উল্লেখ করে প্রচার করা হয়। পরে প্রশাসনের সমঝোতায় স্থান পরিবর্তন করে এই কর্মসূচি সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে নেওয়া হয়। 

উপজেলা জাপার আহবায়ক মেহেদী হাসান মাফু অভিযোগ করেন, বিএনপির কর্মসূচি কলেজ মাঠে করবে জেনে জাতীয় পার্টির ইফতার মাহফিল পূর্ব ঘোষিত স্থান সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে আহবান করা হয়। দলীয় এই আয়োজনের বিষয়টি নন্দীগ্রাম থানায় লিখিতভাবে জানানো হয়েছিল। অথচ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি শিফা নুসরাত বিদ্যালয় অভ্যন্তরে বিএনপিকে কর্মসূচি পালনের অনুমতি দিয়েছেন। তিনি জাতীয় পার্টির কর্মসূচি বাসস্ট্যান্ডে করতে বলেছেন। 

এদিকে দুই দলের কেউই ঘোষিত পৃথক কর্মসূচি বিদ্যালয় মাঠে আয়োজন করতে পারেনি। বিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে উপজেলা ও পৌর বিএনপির দ্বি-বার্ষিক সম্মেলন ও ইফতার মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়। এই কর্মসূচির উদ্বোধন করেন জেলা বিএনপির যুগ্ম আহবায়ক মোশারফ হোসেন এমপি। উপজেলা বিএনপির আহবায়ক জহুরুল ইসলামের সভাপতিত্বে এতে প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন জেলা বিএনপির আহবায়ক ও বগুড়া পৌরসভার মেয়র মো. রেজাউল করিম বাদশা। এসময় জেলা ও উপজেলার নেতারা উপস্থিত ছিলেন।  

অপরদিকে দলের কেন্দ্রীয় নির্দেশনায় ও উপজেলা প্রশাসনের পরামর্শে পৌর সদরের বাসস্ট্যান্ডে একটি রেস্টুরেন্টে জাতীয় পার্টি ইফতার ও দোয়ার আয়োজন করে। উপজেলা জাপার আহবায়ক মেহেদী হাসান মাফুর সভাপতিত্বে ইফতারপূর্ব সভায় বক্তব্য রাখেন উপজেলা জাতীয় পার্টির সদস্য সচিব নজরুল ইসলাম দয়াসহ নেতৃবৃন্দ। 

এ প্রসঙ্গে নন্দীগ্রাম থানার ওসি মো. আনোয়ার হোসেন বলেন, দুই দলের কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। আইনশৃঙ্খলা স্বাভাবিক রয়েছে। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।