তৃতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর ঘর পাচ্ছেন বকশীগঞ্জের আরো ২০ ভূমিহীন!

তৃতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর ঘর পাচ্ছেন বকশীগঞ্জের আরো ২০ ভূমিহীন!



 : জামালপুরের বকশীগঞ্জে প্রথম পর্যায়ে ১৪২ টি পরিবার, দ্বিতীয় পর্যায়ে ৫০ টি পরিবারের পর নতুন করে তৃতীয় পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে সরকারি ঘর পাচ্ছেন আরো ২০ টি ভূমিহীন ও গৃহহীন পরিবার। এতে করে তিন বারে মাথা গোঁজার ঠাঁই পেলেন ২১২ টি অসহায় পরিবার।


বকশীগঞ্জ উপজেলা প্রশাসনের সার্বিক তত্ত¡াবধানে ইতোমধ্যে তৃতীয় পর্যায়ের ঘর নির্মাণের কাজ শেষ হয়েছে। পবিত্র ঈদের আগেই এসব পরিবারকে ঈদ উপহার হিসেবে ঘরের চাবি বুঝিয়ে দেওয়া হবে।

বকশীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মুন মুন জাহান লিজা সার্বিকভাবে ঘর নির্মাণ কাজের গুণগত মান নিশ্চিত করতে প্রতিনিয়ত দেখভাল করে যাচ্ছেন। তার নেতৃত্বেই বাছাই হয়েছে বিভিন্ন ইউনিয়নের ভূমিহীনদের। বেছে বেছে তিনি ছিন্নমূল পরিবারকেই জায়গা করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া উপহারের ঘরে ।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, “আশ্রয়নের অধিকার, শেখ হাসিনার উপহার” ¯েøাগান নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর অগ্রাধিকার আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ‘ক’ শ্রেণির ভূমিহীন অর্থাৎ যাদের জমিও নেই ঘরও নেই তাদের পুনর্বাসনের জন্য নতুন করে ২০ টি পরিবারের জন্য গৃহ নির্মাণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে ঘর গুলো নির্মাণ কাজ শতভাগ হয়েছে। 

২ শতাংশ খাস জমিতে দুই লাখ ৫৯ হাজার ৫০০ টাকা ব্যয়ে স্থায়ীত্ব ও টেকসই করার লক্ষ্যে নতুন ডিজাইনে ঘর গুলো নির্মাণ করা হয়েছে। 

এবার নিলক্ষিয়া ইউনিয়নে ১০ টি, ধানুয়া কামালপুর ইউনিয়নে ৪ টি, বগারচর ইউনিয়নে ৫ টি,বাট্টাজোড় ইউনিয়নে ১ টি ঘর নির্মাণ করা হয়েছে। ইতোমধ্যে এসব ঘরের উপকারভোগীদের নির্বাচন সম্পন্ন করেছেন উপজেলা প্রশাসন। যাদের নির্বাচন করা হয়েছে চাবি হস্তান্তরের আগেই সেসব পরিবারের মুখে হাঁসি ফুটেছে।

তাদের মতে যাদের নুন আন্তে পান্তা ফুরায় তাদের ভাগ্যে বিল্ডিং ঘরে থাকার সোভাগ্য হবে সেটা কখনো কল্পনায় ছিল না। 

জামালপুর জেলা প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মুন মুন জাহান লিজা, উপজেলা প্রকৌশলী মো. শামছুল হক ও উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা (পিআইও) মজনুর রহমান ঘর গুলোর নির্মাণ কাজ পরিদর্শন করেন ও তদারকি করেছেন।

তাঁরা ঘর নির্মাণ কাজের গুণগত মান নিশ্চিত করতে নিয়মিত ঘর গুলো পরিদর্শন করার পাশাপাশি উপকারভোগীদের সাথে মতবিনিময় করেছেন। 

উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মুন মুন জাহান লিজা জানান, সরকারের দেওয়া নির্দেশনা মোতাবেক ঘর গুলোর নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করা হয়েছে। পবিত্র ঈদ উল ফিতরের আগেই উপহার হিসেবে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া গৃহহীনদের জন্য নির্মাণ করা ঘর ভূমিহীন ও গৃহহীনদের মাঝে বুঝিয়ে দেওয়া হবে। 



শেয়ার করুন

সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।