SebaBanner

আজ*

হোম
রিজভীর হঠাৎ সংবাদ সম্মেলন, নৈপথ্যে বের হলো মাদকের ভয়ঙ্কর তথ্য!

রিজভীর হঠাৎ সংবাদ সম্মেলন, নৈপথ্যে বের হলো মাদকের ভয়ঙ্কর তথ্য!
সেবা ডেস্ক: মাদক- যে কোনো উন্নয়নশীল দেশের জন্যে একটি বিশাল হুমকি। মাদকের ভয়াবহতা যে কতটা খারাপ, তা পরিবার থেকে শুরু করে সমাজ পর্যন্ত কারও অজানা নয়। দেশের তরুণ সমাজকে হুমকির মুখে ফেলার জন্যে যে কোনো ক্ষেত্রেই মাদক দায়ী। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে সফল অভিযানের পর সরকার বর্তমানে মাদক নির্মূলে পদক্ষেপ নিচ্ছে। তার ধারাবাহিকতায় ইতোমধ্যে দেশব্যাপী চলছে মাদক বিরোধী অভিযান। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমজুড়েই চোখে পড়ছে যার প্রশংসা। এর সুফলও ইতোমধ্যে পেতে শুরু করেছে দেশের জনগণ। তবে, একজন বাংলাদেশের নাগরিক হয়ে আমাদের সবচাইতে দু:ভাগ্য যে আমাদের দেশে “বিএনপি” নামক রয়েছে একটি দল, যারা নিজেরা ক্ষমতায় থাকাকালীন দেশকে করেছিল মাদক আর অস্ত্রের অভয়ারণ্য, আর বর্তমানেও সরকারের চলমান এই মাদক বিরোধী অভিযানকে প্রশ্নবিদ্ধ করতে মরিয়া বিএনপি।

রোববার (২০ মে) গণভবনে খুলনা সিটি করপোরেশনের (কেসিসি) নবনির্বাচিত মেয়র ও কাউন্সিলররা শুভেচ্ছা জানানোর এক অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী মাদক বিরোধী অভিযানের কথা উল্লেখ করে বলেন, ‘আমরা যেমন জঙ্গিবাদকে দমন করেছি। অঙ্গীকার করেছি, এই মাদক থেকে দেশকে উদ্ধার করবো আমরা।’ প্রধানমন্ত্রী অনুষ্ঠানে বলেন, ‘আপনারা নিশ্চয় লক্ষ্য করছেন যে, মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান শুরু হয়ে গেছে।… মাদকের জন্য একেকটা পরিবার যে কষ্ট পায়, যেভাবে একেকটা পরিবার ধ্বংস হয়ে যায়…। কাজেই এবার মাদকের বিরুদ্ধে অভিযান। আমরা আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী, গোয়েন্দা সংস্থা এবং র‌্যাবকে বিশেষ দায়িত্ব দিয়েছি। যেখানেই মাদক, সেখানেই কঠোর ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং সে ব্যবস্থা নিচ্ছি।’


ছেলে-মেয়েরা যেন বিপথে না যায় সেদিকে অভিভাবকসহ সবাইকে সচেতন থাকার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের ছেলে-মেয়ে লেখাপড়া শিখবে, সুন্দর জীবন পাবে, সুন্দরভাবে বাঁচবে।’


আর এদিকে একই দিনে রাজধানীর নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব এ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী আহমেদ বলেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনী মাদক নির্মূলের নামে কিলিং প্র্যাকটিস করছে’। এ সময় রুহুল কবির রিজভী আরো বলেন, চলতি মাসে যেন পোকা-মাকড়ের মতো মানুষ হত্যার হিড়িক চলছে।


মাদক সেবী ও মাদক বিক্রেতাদের বাঁচাতে বিএনপির এই তড়িৎ সংবাদ সম্মেলন আর রুহুল কবির রিজভির এমন মায়াকান্নার সূত্র ধরে অনুসন্ধানে বেরিয়ে আসে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য! দেশের মাদক ব্যবসায় পরিচালনা এবং নিয়ন্ত্রণে সরাসরি ভূমিকা রাখছে বিএনপি! যেহুতো বর্তমানে বিএনপির অন্যান্য সকল ব্যবসায় স্থবির, তাই দলের ডাকসাইডে ছাত্র দল এবং যুব দল কর্মীদের দিয়ে বর্তমানে মাদক ব্যাবসায় নিয়ন্ত্রণ করছে বিএনপি। এতে বিএনপির দুটো লাভ, প্রথমত মাদক ব্যবসায় নিয়ন্ত্রণের ফলে দলের দুঃসময় কালো টাকা আয়, দ্বিতীয়ত অবাধ মাদকের ফলে সরকারকে সমালোচিত করা।

আর তাই চলমান মাদক বিরোধী অভিযানে বিএনপির তাসের-ঘর ভেঙে যাওয়ায় রহুল কবির রিজভীর এমন সংবাদ সম্মেলন। সর্বনাশা মাদকের বিরুদ্ধে সামাজিকভাবে গণআন্দোলন গড়ে তুলতে পারলেই পুরোপুরি নির্মূল করা সম্ভব এই ব্যাধি। মাদক নির্মূলে আমাদের সকলকে এগিয়ে আসা উচিত ।





, , ,