তারেক জিয়ার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান: ব্যাংককে মির্জা ফখরুল

তারেক জিয়ার আমন্ত্রণ প্রত্যাখ্যান: ব্যাংককে মির্জা ফখরুল

সেবা ডেস্ক: বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে আলোচনার জন্যে দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন তারেক জিয়া মির্জা ফখরুলকে লন্ডনে আমন্ত্রণ জানান। কিন্তু তারেক জিয়ার এ আবেদনকে প্রত্যাখ্যান করেন মির্জা ফখরুল। দলের অভ্যন্তরে মির্জা ফখরুল ও তারেক জিয়ার দ্বন্দ্ব নিয়ে গুঞ্জন অনেক আগে থেকেই। মির্জা ফখরুলের স্বেচ্ছাচারিতা যেমন তারেক রহমানের পছন্দ নয় তেমনি দুর্নীতিবাজ ও চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের কারণে তারেক জিয়াকে অপছন্দ করেন মির্জা ফখরুল। দলের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যানের দায়িত্ব পাওয়ার পর থেকে তারেক জিয়ার ওপর মির্জা ফখরুলের অনাস্থা আরো অনেকগুনে বেড়ে যায়। তারেক রহমানের নেতৃত্ব মানতে যে কয়জন সিনিয়র নেতা নারাজ, মির্জা ফখরুল তাদের মধ্যে অন্যতম। তাদের এ দা-কুমড়া সম্পর্ক আবারো সকলের দৃষ্টিগোচর হয় যখন তারেকের আমন্ত্রণ প্রত্যাখান করে সস্ত্রীক ব্যাংকক গমন করে ফখরুল।



চিকিৎসার উদ্দেশ্যে গত ০৩ জুন স্ত্রী রাহাত আরা বেগমকে নিয়ে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে ব্যাংককের উদ্দেশ্যে যাত্রা করেন তিনি। অথচ আগের দিন শনিবার সন্ধ্যায় রাজধানীর ধানমণ্ডির ফখরুদ্দিন কনভেনশন সেন্টারে জাতীয়তাবাদী প্রাক্তন ছাত্রকল্যাণ পরিষদ রংপুর মেডিকেল কলেজ শাখার আয়োজনে ইফতার মাহফিলে তিনি অংশ নেন। ওই সময় তার ব্যাংকক যাত্রার বিষয়ে জানতো না কেউ, বিএনপি মহাসচিবও এ বিষয়ে মুখ খুলে বলেননি কিছুই। হঠাৎ করে মির্জা ফখরুলের ব্যাংকক যাওয়া নিয়ে ধোয়াশা তৈরি হয়েছে রাজনৈতিক অঙ্গনে। শোনা যাচ্ছে পরস্পর বিরোধী দুরকম কথাবার্তা।



চিকিৎসার নাম করে ব্যাংককের উদ্দেশ্যে পাড়ি জমালেও পূর্বে কখনোই চিকিৎসার জন্যে ব্যাংকক যাননি মির্জা ফখরুল। বরঞ্চ সিঙ্গাপুর ও মালয়েশিয়াই ছিল মির্জা ফখরুলের হার্ট ও যাবতীয় শারীরিক সমস্যা সমাধানের গন্তব্য।



মূলত, মির্জা ফখরুল তারেকের সঙ্গে এই মুহূর্তে লন্ডনে যেয়ে বৈঠক করতে চান না। অনেক বিষয়েই তাঁদের মত বিরোধ রয়েছে। তারেকের আত্মসম্মানে যাতে না লাগে বিষয়টা তাই ব্যাংকক চলে যান মির্জা ফখরুল। আর ফখরুলকে বোঝাতে পিছু নিয়েছেন আমীর খসরু। বিএনপির একাধিক সূত্র বলছে খসরু মির্জা ফখরুলকে লন্ডনে যেতে রাজি করানোর চেষ্টা করবেন।



,
themeforestthemeforest

ছবি কথা বলে