জালিয়াখালী নতুন বাজার ব্যবসায়ী সমিতির ভোটার হালনাগাদে অনিয়ম

জালিয়াখালী নতুন বাজার ব্যবসায়ী সমিতির ভোটার হালনাগাদে অনিয়ম
বাঁশখালী প্রতিনিধি, চট্টগ্রামঃ চট্টগ্রামের বাঁশখালী উপজেলার মনকিচর জালিয়াখালী নতুন বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির নির্বাচন ২০১৯ এ ব্যবসায়ী বহির্ভূত লোকদেরকে বিধি বহির্ভূতভাবে ভোটার করা ও স্থায়ী ব্যবসায়ীদেরকে ভোটার তালিকা থেকে বাদ দেওয়া নতুন ব্যবসায়ীদেরকে তালিকায় অন্তর্ভুক্ত না করার অভিযোগ উঠে স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ও নতুন বাজার ব্যবসায়ী কল্যাণ সমিতির নির্বাচন পরিচালনার আহ্বায়ক মো. মহসিন'র বিরুদ্ধে।

জালিয়াখালী নতুন বাজারের পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের প্রয়োজনীয়তা উপলব্ধি করে সকল ব্যবসায়ীদের সম্মতিতে ২০১৯   এর নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোমেনা আক্তার বাজার কমিটি গঠনের নির্দেশ দেন শিলকুপ ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মো. মহসিনকে। তাকে নির্বাচন কমিশনার নিযুক্ত করা হলে সম্প্রতি তিনি খসড়া ও চুড়ান্ত ভোটার তালিকা প্রস্তুত করে। তিনি চূড়ান্ত ভোটার তালিকা তৈরি করে আগামী ১২ অক্টোবর নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করেন। কিন্তু চেয়ারম্যানের গড়া চূড়ান্ত ভোটার তালিকায় ব্যবসায়ীদের আপত্তি আসে। ব্যবসায়ীদের মধ্যে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে। এমনকি পক্ষ-বিপক্ষ হুমকি-ধমকি, বাক-বিতন্ডার ঘটনাও ঘটেছে বলে জানা যায়।

চুড়ান্ত ভোটার তালিকায় বাজারের স্থায়ী ৯জন ব্যবসায়ীর নাম ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত করা হয়নি বলে অভিযোগ করেন ব্যবসায়ী- জাফর, মান্নান, ছমুদুল হক, নেজাম উদ্দিন, আব্দুল হক, জাকের হোসেন, এজহারুল হক, শাহাব উদ্দিন ও মো. মোরশেদ। বাজারের ব্যবসায়ী মো. আবু তালেব বলেন, ইউপি চেয়ারম্যান আমাদের সমিতির নির্বাচনে ব্যবসায়ী নন এ রকম ব্যক্তিদের ভোটার করেছেন। ২৩০ জন ব্যবসায়ী নিয়ে গঠিত বাজারের ভোটার করা হয়েছে ২৬৯ জনকে। প্রকৃত ভোটার তালিকা ছাড়া যে কোনো নির্বাচন আমরা প্রতিহত করব।

এ বিষয়ে শীলকূপ ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো. মহসিন বলেন, ‘ভোটার তালিকা হালনাগাদে কোন অনিয়ম করা হয়নি। নতুন ভোটারদের অন্তভূক্ত করা হয়নি বলে যারা অভিযোগ করেছেন তারা কেউ এ বিষয়ে আমাকে জানায়নি। তবে এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী শিক্ষা কর্মকর্তা আবু বক্কর মো. সিদ্দিকীকে তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন ইউএনও মহোদয়। প্রশাসনের নির্দেশনা যা আসে তার বাস্তবায়ন করবো। আমিও চাই সুষ্টু তদন্তের মাধ্যমে প্রকৃত ব্যবসায়ীরা ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্তি হোক।'

ইউএনও মোমেনা আক্তার বলেন, ‘তদন্ত প্রতিবেদন সাপেক্ষে সিদ্ধান্ত না হওয়ার আগে নির্বাচন হবে না। তদন্ত পরবর্তী নির্বাচনের তারিখ ঘোষণা করা হবে।'

 -সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

,

0 comments

Comments Please