বকশীগঞ্জে শিক্ষক ও গ্রন্থাগারিকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ

বকশীগঞ্জে শিক্ষক ও গ্রন্থাগারিকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ



মেরুরচর হাছেন আলী উচ্চ বিদ্যালয়ে ভুয়া সনদে চাকরির অভিযোগ

সেবা ডেস্ক: জামালপুরের বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর হাছেন আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ১ শিক্ষক ও গ্রন্থাগারিকের বিরুদ্ধে ভুয়া সনদ দিয়ে চাকরি করার অভিযোগ উঠেছে। 

এ ব্যাপারে বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর ইউপির সর্দারপাড়া গ্রামের শিহাব উদ্দিন নামে এক ব্যক্তি দুর্নীতি দমন কমিশনসহ প্রশাসনের বিভিন্ন বিভাগে লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

জানা যায়, বকশীগঞ্জ উপজেলার মেরুরচর হাছেন আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের ইনডেক্সধারী সহকারী শিক্ষক মোহাম্মদ আলী শিক্ষাগত যোগ্যতার জাল সনদ দিয়ে বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক হিসেবে এমপিওভুক্ত হয়েছেন। 

এছাড়াও একই বিদ্যালয়ের গ্রন্থাগারিক পদে নিয়োগপ্রাপ্ত হযরত আলীর শিক্ষাগত যোগ্যতার সনদও জাল। হযরত আলী নুসরত আলী নামে এক ব্যক্তির সার্টিফিকেট দিয়ে এমপিও ভুক্ত হয়েছেন।

এ ব্যাপারে অভিযুক্ত শিক্ষক মোহাম্মদ আলী জানান, আমার বিরুদ্ধে যে লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে তার কোনো ভিত্তি নেই। মিথ্যা অভিযোগ দিয়ে আমাকে হয়রানি করা হচ্ছে। 

একই বিষয়ে অভিযুক্ত হযরত আলী জানান, সরকারের নিয়ম মাফিক কাগজ পত্র জমা দিয়েই চাকরিতে যোগদান করেছি। 

Allegations of employment with fake certificates against teachers and librarians in Bakshiganj

অভিযোগকারী শিহাব উদ্দিন জানান, মোহাম্মদ আলী ও হযরত আলীর শিক্ষাগত যোগ্যতার কাগজপত্র জাল। তদন্ত করলেই সব কিছু বের হয়ে আসবে। 

মেরুরচর হাছেন আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শফিকুল ইসলাম জানান, অভিযুক্ত দুই জনের দায়ের করা শিক্ষাগত যোগ্যতার কাগজপত্র অনুযায়ী এমপিওভুক্ত হয়েছে। এর বাইরে কিছু জানি না। 


শেয়ার করুন

-সেবা হট নিউজ: সত্য প্রকাশে আপোষহীন

0 comments

মন্তব্য করুন

খবর/তথ্যের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, সেবা হট নিউজ এর দায়ভার কখনই নেবে না।