মিথ্যা মামলায় অভিযুক্ত ভিপি রুবেলের মুক্তির দাবি ঘাটাইল উপজেলা ছাত্রলীগের।

মিথ্যা মামলায় অভিযুক্ত ভিপি রুবেলের মুক্তির দাবি ঘাটাইল উপজেলা ছাত্রলীগের।
ভিপি রুবেল
ঘাটাইল প্রতিনিধি: মিথ্যা,বানোয়াট, এবং ভিত্তিহীন মামলায় ভিপি রুবেল জেলে রয়েছেন বলে দাবি করেছেন ঘাটাইল উপজেলা ছাত্রলীগ।

টাংগাইল জেলা আওয়ামীলীগের বর্তমান সহ-সভাপতি তুহিন আব্দুল্লাহ তিনি জন্মগত ভাবে জাতীয় পার্টি সমর্থিত পরিবারের সন্তান।তার পিতা মৃত জাকারিয়া (টাংগাইল-৩) ঘাটাইল আসন থেকে লাঙল মার্কা নিয়ে নির্বাচন করেন।পরবর্তীতে তুহিন আব্দুল্লাহ ২০১২ সালে (টাংগাইল-৩) ঘাটাইল আসন থেকে লাঙল মার্কা নিয়ে নির্বাচন করেন।নির্বাচনে তিনি পরাজিত হন এর পর থেকে তাকে ঘাটাইলে কোন আন্দোলন-সংগ্রামে দেখা যায়নি।তিনি হটাৎ করে আওয়ামীলীগে প্রবেশ করে জেলা আওয়ামীলীগের সহ-সভাপতি হয়।এবং (টাংগাইল-৩) ঘাটাইল আসন আওয়ামীলীগের পক্ষে নৌকার মনোনয়ন চান।

হটাৎ করে গত ২৭-০৯-১৮ ইং তারিখ ঘাটাইল সরকারি জি,বি,জি কলেজের ভি. পি রুবেল কে গ্রেপ্তার করা হয় এবং এবং তুহিন আব্দুল্লাহ দাবি করেন,ঘাটাইল উপজেলা আওয়ামীলীগের আহবায়ক শহিদুল ইসলাম লেবুর নেত্রীত্বে ভিপি রুবেল এবং ছাত্রলীগের নেতা আবিদ হোসেন পরিকল্পিত ভাবে কিছু সংক্ষক পোলাপান নিয়ে তার উপর হামলা করে।

এ বিষয়ে ঘাটাইল উপজেলা ছাত্রলীগের অন্যতম নেতা আবিদ হোসনের সাথে কথা বলে যানা জায়,তারা জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিন উপলক্ষে একটি প্রস্তুতি মিটিং করার জন্য কথা বলছিলেন। এমন সময় হটাৎ করে তুহিন আব্দুল্লাহর কিছু পোলাপান এসে অনাকাঙ্খিত ভাবে তাদেরকে আক্রমণ করার চেস্টা করেন।এক পর্যায়ে প্রতিহত করার জন্য ভি. পি রুবেল এবং আবিদ হোসেন সহ উপস্থিত সকলে ঘুরে দারালে তুহিন আব্দুল্লাহ গাড়ি নিয়ে এসে দাবি করেন তুহিন আব্দুল্লাহকে তারা হামলা করে এবং কোন কারন ছাড়াই তুহিন আব্দুল্লাহ ব্যাক্তিগত ক্ষমতার দ্বারা রুবেলকে গ্রেপ্তার করায়।

তুহিন আব্দুল্লাহ ১৪ জনকে আসামি করে ঘাটাইল থানায় মামলা করেন।এ মামলায় বর্তমানে আবু সাইদ রুবেল, টিটু সরকার,আল-আমিন,রিয়াজ টাংগাইল কারাগারে রয়েছেন।



ঘাটাইল উপজেলা ছাত্রলীগ নেতা আসাদুজ্জামান আসাদ,সজল সিদ্দিকী,গনি মিয়া,রুবেল হোসেন; পৌর ছাত্রলীগ নেতা রাতুল হাসান, রাফসান সাইফ সন্ধি সহ সকলেই এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানান এবং ভিপি রুবেলের মুক্তির দাবি জনান।
⇘সংবাদদাতা: ঘাটাইল প্রতিনিধি

,

0 মন্তব্য(গুলি)

Comments Please